ভিতরে

আমের রপ্তানি বৃদ্ধিতে সর্বাত্মক উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে : কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, আমের রপ্তানি বৃদ্ধির লক্ষ্যে সর্বাত্মক উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। 
তিনি আজ বিকেলে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষ থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে ‘আম রপ্তানি বৃদ্ধিতে করণীয়’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দেশের আমকে আমরা ব্যাপকভাবে বিশ্ব বাজারে নিয়ে যেতে চাই। তাই আম রপ্তানির বাধাসমূহ চিহ্নিত করে তা নিরসনের কাজ চলছে। 
তিনি বলেন, ইতোমধ্যে নিরাপদ আমের নিশ্চয়তা দিতে ৩টি ভ্যাকুয়াম হিট ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট স্থাপনের কাজ চলছে। উৎপাদন থেকে শিপমেন্ট পর্যন্ত আম নিরাপদ রাখতে উত্তম কৃষি চর্চা বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। 
তিনি বলেন, আমের রপ্তানি বাড়ানোর লক্ষ্যে ফাইটোস্যানিটারি সার্টিফিকেট দেয়ার কাজ চলছে। এতে আগামী বছর আম রপ্তানির পরিমাণ অনেক বৃদ্ধি পাবে।
মন্ত্রী বলেন, এ বছর আমের ভাল ফলন হয়েছে। কিন্তু  লকডাউন ও বাজার না থাকায় চাষিরা আম বিক্রি করতে হিমশিম খাচ্ছে। তারা এবার আশানুরূপ দাম পায়নি। সেজন্য, আমের আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর আরও বেশি গুরুত্ব দিতে হবে যাতে চাষিরা আশানুরূপ দাম পায় ও আম চাষে আরও আগ্রহী হয়।
তিনি বলেন, আম বাংলাদেশের একটি উচ্চমূল্যের অর্থকরী ফসল। বর্তমান সরকারের নানামুখী উদ্যোগ, আমের উন্নত জাত ও উৎপাদন প্রযুক্তি উদ্ভাবনের ফলে দেশে প্রতিবছর আমের উৎপাদন বাড়ছে। আম রপ্তানির সম্ভাবনাও অনেক।
তিনি আরো বলেন,  কিন্তু আম রপ্তানিতে আমরা অনেক পিছিয়ে আছি। অনেক দেশ বাংলাদেশের চেয়ে কম উৎপাদন করেও রপ্তানিতে এগিয়ে রয়েছে।
কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন সংস্থাপ্রধান, আমচাষি, ব্যবসায়ী, শাকসবজি ও ফল রপ্তানিকারক এবং প্রাণ গ্রুপ, স্কয়ার ফুড, এসিআই, আকিজ ফুড, ব্র্যাক ডেইরিসহ বিভিন্ন প্রক্রিয়াজাতকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনি কি মনে করেন?

-1 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

গণপরিবহণ ও পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করুন : জি.এম.কাদের

হোমিওপ্যাথিক বোর্ডের চেয়ারম্যান পদে পুনঃনিয়োগ পেলেন ডা. দিলীপ রায়