ভিতরে

কসোভোর প্রেসিডেন্টের কাছে পরিচয় পত্র পেশ করলেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত

জার্মানিতে নিয়মিত দায়িত্বে নিযুক্ত বাংলাদেশের  রাষ্ট্রদূত মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, কসোভো প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্ট ড. ভিয়োসা ওসমানি সাদ্রিয়ঁর কাছে অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত হিসেবে পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।    
সে দেশের সময় অনুযায়ী গত বুধবার এক অনাড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কসোভো প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্টের কাছে তিনি পরিচয়পত্র পেশ করেন।    
পরিচয়পত্র পেশের পর কসোভো’র প্রেসিডেন্টের সাথে রাষ্ট্রদূতের এক একান্ত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এ সময় রাষ্ট্রদূত কসোভো’র প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন। সে দেশের প্রেসিডেন্ট, রাষ্ট্রদূতকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন দুই দেশের মধ্যে চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরো ফলপ্রসূ এবং মজবুত করা সম্ভব। এছাড়া কোভিড-১৯ অতিমারী প্রতিরোধ ও ভ্যাকসিন সমস্যা, বিনিয়োগ ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক উন্নয়ন সম্ভাবনা, দ্বৈত কর পরিহার চুক্তি সম্পাদন, কূটনৈতিক ও অফিসিয়াল পাসপোর্টের জন্য ভিসা প্রক্রিয়া সহজিকরণ, দু’দেশের জনগণের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় ও ফলপ্রসূ সংযোগ ইত্যাদি বিষয়ে উভয় পক্ষ মতবিনিময় করেন।
জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন পরিমন্ডলে নতুন দেশ হিসেবে কসোভো’র প্রতি বাংলাদেশের সমর্থনের বিষয়ে কসোভো’র প্রেসিডেন্ট তাঁর প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।
জবাবে মোশাররফ ভূঁইয়া স্বাধীনতার জন্য কসোভো ও বাংলাদেশের মুক্তিকামী মানুষের একই রকমের ত্যাগ স্বীকার ও মুক্তি সংগ্রামের বিষয় উল্লেখ করেন। কসোভো’র প্রতি বাংলাদেশের সমর্থনের আশ্বাস জানিয়ে তিনি বলেন, কসোভোর পাশে দাঁড়ানোর জন্য বাংলাদেশ সবসময়ই প্রস্তুুত আছে। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অব্যাহত ও অভূতপুর্ব সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের বিষয়েও  রাষ্ট্রদূত, কসোভোর প্রেসিডেন্টকে অবহিত করেন।
বৈঠক শেষে কসোভোর প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে আন্তরিক শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

ভারতে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৪৬ হাজার ৬১৭ জন, করোনা পুনরুদ্ধার হার ৯৭ শতাংশ

তিনদিনে পার্বত্য অঞ্চলের প্রধান সব নদ-নদীর পানি বৃদ্ধিতে বন্যার সম্ভাবনা