ভিতরে

গ্রাম আদালতের মতো নগর আদালত প্রতিষ্ঠার দাবীও যৌক্তিক : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

গ্রাম আদালতের মতো নগর আদালত প্রতিষ্ঠা করার দাবী যৌক্তিক বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।
তিনি আজ ‘নগর আদালত আইন: প্রস্তাবিত রূপরেখা এবং বাস্তবায়নের সম্ভাবনা’ শীর্ষক এক ভার্চুয়াল সংলাপে অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান।
এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্লাটফর্ম, বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট), মাদারীপুর লিগ্যাল এইড এসোসিয়েশন এবং নাগরিক উদ্যোগ যৌথভাবে এই ভার্চুয়াল সংলাপের আয়োজন করে।
মো. তাজুল ইসলাম বলেন, গ্রামের মত নগর বা শহরেও গরিব-দুঃখী অসহায় মানুষ বসবাস করেন। ক্ষুদ্র-ক্ষুদ্র বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য তাদের আদালতের শরণাপন্ন হতে হয়। তাই সিটি কর্পোরেশনে বসবাসরত নাগরিকদের জন্য নগর আদালত আইন বা অন্যকোন নামে আদালত প্রতিষ্ঠিত হলে নাগরিকরা দ্রুত বিচার পাবেন এবং উপকৃত হবেন।
তিনি বলেন, গ্রাম আদালত বা নগর আদালত যেটাই করা হোক না কেন, যদি স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করা না যায় তাহলে প্রত্যাশিত লক্ষ্য অর্জিত হবে না। কোনোক্রমেই মানুষের দুর্ভোগ বাড়ানো যাবে না।
ক্ষমতায়ন করার আগে জবাবদিহিতা এবং দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করার উপর গুরুত্ব আরোপ করে মন্ত্রী বলেন, ভাল বা মন্দ মানুষ যেই হোক না কেন তাকে যদি স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও দায়বদ্ধতার আওতায় আনা না হয় তাহলে সে বিপথে যাবেই।
এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জনপ্রতিনিধিত্বশীল প্রতিষ্ঠানগুলো বেশি অবদান রাখতে পারবে এবং বেশি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পারবে। কর্মচারী ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের ইচ্ছা থাকলেও সেটা করতে পারবে না। সাধারণ মানুষের কাছে নাগরিক সেবা পৌঁছে দিতে জনপ্রতিনিধিদের কোন বিকল্প নেই।
জনপ্রতিনিধিত্বকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরো জবাবদিহিতার আওতায় আনার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে সহযোগিতা করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান তিনি।
তাজুল বলেন, বিশ্বের যে কোন দেশের তুলনায় বাংলাদেশে অর্থনৈতিক বৈষম্য কম। দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ে তুলতে মানুষকে উপার্জনক্ষম ও অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করে তৈরি করার দায়িত্ব সরকারের। প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলের মানুষের কাছে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সহজলভ্য হওয়ার পাশাপাশি আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা পৌঁছে গেছে। আমাদের সকলের উদ্দেশ্য একটাই তা হচ্ছে দেশ, মানুষ ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করে একটি সুখী-সমৃদ্ধ উন্নত দেশ গড়ে তোলা ।
এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্লাটফর্মের আহবায়ক ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্যের সঞ্চালনায় সংলাপে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থার জনপ্রতিনিধি ও ব্যক্তিবর্গ এবং সরকারি কর্মকর্তা, আইনজীবী, সামাজিক আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিবর্গ, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠানে নগর আদালত আইন প্রস্তাবের রূপরেখা এবং বাস্তবায়নের সম্ভাবনা নিয়ে একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করা হয়।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

সরকারি চাকরিজীবীদের প্রজাতন্ত্রের সেবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে হবে : প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

শপথ নিলেন নব-নির্বাচিত সংসদ সদস্য নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন