ভিতরে

ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা থাকায় কক্সবাজারের পাঁচ উপজেলা অত্যন্ত ঝুঁকিতে

ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে আকষ্মিক বন্যার সম্ভাবনা থাকায় কক্সবাজার জেলার টেকনাফ, উখিয়া, রামু, মহেশখালী, কুতুবদিয়া সদর উপজেলাগুলো অত্যন্ত  ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।
আজ বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর ও ভারত অধিদফতরের গাণিতিক মডেলের তথ্য অনুযায়ী , আগামী ২৪ ঘন্টায় দেশের দক্ষিণাঞ্চল ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় জেলা এবং এর কাছাকাছি অঞ্চলে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস আছে।
পূর্বাভাসে আরো বলা হয়,ভারী বর্ষণের ফলে এসব অঞ্চলের প্রধান সব নদীর পানি সমতল সময় বিশেষে দ্রুত বাড়তে পারে এবং কোথাও কোথাও আকষ্মিক বন্যা হতে পারে।  
এদিকে, গঙ্গা নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা ৭২ ঘন্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। পদ্মা নদীর পানি সমতল স্থিতিশীল আছে,যা অব্যাহত থাকতে পারে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত ।
অপরদিকে ব্রক্ষ্মপুত্র – যমুনা নদ ও নদীর পানি সমতল স্থিতিশীল আছে,যা ৪৮ ঘন্টায় অব্যাহত থাকতে পারে। উত্তরপূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান সব নদ ও নদীর পানি সমতল বাড়ছে, ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত তা  অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।
এদিকে,২৪ ঘন্টায়  তিস্তা নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি  পেতে পারে এবং ডালিয়া পয়েন্টে পানি সমতল বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে।  
গত ২৪ ঘন্টায় উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত হয়েছে, মাদারীপুরে ১২৩ মিলিমিটার, চট্টগ্রামে ১০১ মিলিমিটার, লরের গড়ে ৭০ মিলিমিটার, মহাদেবপুরে ৫৪ মিলিমিটার।
দেশের পর্যবেক্ষণাধীণ ১০১ টি পানি সমতল ষ্টেশনের মধ্যে বৃদ্ধি পেয়েছে ৫৭ টির, হ্রাস পেয়েছে ৩৫ টির,অপরিবর্তিত রয়েছে ৮ টির,গেজ পাঠ পাওয়া যায়নি ০১ টির।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

চট্টগ্রামে শহরের চেয়ে গ্রামে করোনায় আক্রান্ত বেশি

অধঃস্তন আদালত ও ট্রাইব্যুনালে স্বাভাবিক বিচার কার্যক্রম চলবে