ভিতরে

ন্যাটোর বিশ্বাস পোল্যান্ডের বিস্ফোরণ একটি দুর্ঘটনা, কিয়েভ রাশিয়াকে দোষারোপ করেছে

পশ্চিমা নেতারা গতকাল বুধবার ইউক্রেনে রাশিয়ার যুদ্ধে বিপজ্জনক বৃদ্ধির ভয়কে শান্ত করতে গিয়ে বলেছেন, পোল্যান্ডে একটি ক্ষেপণাস্ত্র বিস্ফোরণ সম্ভবত দুর্ঘটনা ছিল। এ সময় কিয়েভ তার বিমান-বিধ্বংসী আগুনের ধারণাটিকে কঠোরভাবে ফিরিয়ে দিয়ে রাশিয়াকে দোষারোপ করে।
ইউক্রেনের নেতা ভলোদিমির জেলেনস্কি রাশিয়ার দিকে আঙুল তুলেছিলেন, কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ন্যাটোর মতো, ওয়ারশ-এর মূল্যায়নের সমর্থনে দৃঢ়ভাবে বেরিয়ে এসেছিল মারাত্মক ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্ভবত ইউক্রেন নিক্ষেপ করেছিল।
পশ্চিমা-সমর্থিত ইউক্রেনের অভ্যন্তরে বেসামরিক অবকাঠামোর লক্ষ্য করে রাশিয়ান বোমা হামলার সময় মঙ্গলবার ইউক্রেনীয় সীমান্তের কাছে ন্যাটো সদস্য পোল্যান্ডের একটি গ্রামে কমপক্ষে একটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানলে দুইজন নিহত হয়।
ওয়ারশ এবং ন্যাটো উভয়ই বলেছে, প্রিজিউদাও গ্রামে বিস্ফোরণটি ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্ভবত একটি ইউক্রেনীয় বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনীর। রাশিয়ান একটি ব্যারেজকে বাধা দেওয়ার জন্য ইউক্রেন  এটি নিক্ষেপ করেছিল।  যখন উভয়ই জোর দিয়েছিল যে, মস্কো শেষ পর্যন্ত সংঘর্ষ শুরু করার জন্য দায়ী ছিল।
হোয়াইট হাউস বলেছে, তারা পোল্যান্ডের প্রাথমিক মূল্যায়নের ‘বিরোধিতা করে এমন কিছুই দেখেনি’- পাশাপাশি ঘোষণা করেছে যে, ‘এই মর্মান্তিক ঘটনার জন্য চূড়ান্তভাবে দায়ী রাশিয়া।’
প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি অবশ্য বলেছিলেন কিয়েভ ক্ষেপণাস্ত্রটি ইউক্রেনীয় বলে কোনো প্রমাণ পায়নি। তবে কিয়েভ  তদন্তের দাবি করে বলেছে, বিস্ফোরণটি আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র নয়।’ তিনি বলেন,  ‘আমি বিশ্বাস করি  এটি একটি রাশিয়ান ক্ষেপণাস্ত্র ছিল। আমাদের সামরিক বাহিনীর প্রতিবেদনেও তা উল্লেখ ছিল।
বুধবারের মধ্যে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ দুদা ঘোষণা করেছিলেন, ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্ভবত ইউক্রেনের নিজস্ব বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনীর ছিল।
দুদা বলেছিলেন এটি খুব সম্ভবত সোভিয়েত যুগের ক্ষেপণাস্ত্র। ইউক্রেন এটা চালু নিক্ষেপ করেছিল। তিনি ‘দুর্ভাগ্যজনক দুর্ঘটনা’ বলে অভিহিত করলেও ইউক্রেনের উপর আক্রমণের কারণে রাশিয়াকে দোষারোপ করা হয়েছে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

ইউক্রেন শস্য চুক্তি বহাল থাকবে : তুরস্ক

‘দাঁতভাঙ্গা’ সামরিক জবাবের সতর্কতার কয়েক ঘণ্টা পর ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ উ. কোরিয়ার