ভিতরে

কোচ ও ওয়াগন মেরামতের ওয়ার্কশপ নির্মাণ বিষয়ে কনসালটেন্ট নিয়োগ চুক্তি 

 রাজবাড়ীতে কোচ ও ওয়াগন মেরামতের ওয়ার্কশপ নির্মাণের বিষয়ে কনসালটেন্ট নিয়োগের চুক্তি আজ রেল ভবনে স্বাক্ষরিত হয়।
চুক্তিতে বাংলাদেশ রেলওয়ের পক্ষে স্বাক্ষর করেন সংশ্লিষ্ট প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ কুদরাত ই খুদা এবং কনসালটেন্টের পক্ষে সিস্ট্রার সাউথ এশিয়া বিষয়ক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হারি সোমাল রাজু।
অনুষ্ঠানে রেলপথ মন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘বাংলাদেশের রেলওয়েতে দুই ধরনের গেজ ব্যবস্থা বিদ্যমান, মিটারগেজ এবং ব্রডগেজ।  মিটারগেজকে পর্যায়ক্রমে আমরা ব্রডগেজে রূপান্তরের উদ্যোগ নিয়েছি।  উন্নত বিশ্বে সাশ্রয়ী ও পরিবেশ বান্ধব হিসেবে রেলওয়ে যেভাবে উন্নয়ন হয়েছে; আমাদের রেল ব্যবস্থা এখনো সেভাবে গড়ে তুলতে পারিনি। আমাদের দেশে রেল ব্যবস্থা এখনো ডিজেল চালিত অথচ পার্শ্ববর্তী ভারতে প্রায় পুরোটা বিদ্যুৎ চালিত ট্রেন।’
তিনি বলেন, পদ্মা সেতু রেল সংযোগের ফলে রাজবাড়ীর সাথে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের যোগাযোগ স্থাপিত হবে ফলে এখান থেকে কোচ এবং ওয়াগন মেরামত করে সারাদেশে চালানো সম্ভব হবে।  প্রতিটি জেলায় রেল সংযোগ স্থাপিত হবে। ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের সাথে যোগাযোগ স্থাপিত হবে। নতুন করে রেল ব্যবস্থা গড়ে তোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। 
রাজবাড়ীর ওয়ার্কশপ নির্মাণের জন্য নির্বাচিত প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের সিস্ট্রা কাজটি করবে। আগামী ১৬ মাসের মধ্যে তারা বিস্তারিত নকশাসহ সম্ভাব্যতা সমীক্ষা ও বিড ডকুমেন্ট প্রস্তুত করবে।
এতে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. হুমায়ুন কবীর, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্রনাথ মজুমদারসহ রেলপথ মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

আদালত অবমাননা আইন বাতিলে হাইকোর্টের রায় প্রকাশ

মওলানা ভাসানী সবসময় ব্যক্তি স্বার্থের ঊর্ধ্বে জাতীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দিতেন : রাষ্ট্রপতি