ভিতরে

উদিনেসকে ৩-২ গোলে পরাজিত করে ১১ পয়েন্টের লিড নিল নাপোলি

 রোমাঞ্চকর ম্যাচে উদিনেসকে ৩-২ গোলে পরাজিত করে সিরি এ  লিগ টেবিলে আরো এগিয়ে গেছে নাপোলি। শীর্ষে থাকা নাপোলি এখন ১১ পয়েন্টে সুস্পষ্ট ব্যবধানে পিছনে ফেলেছে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ল্যাজিওকে।  
লুসিয়ানো স্পালেত্তির দল ভিক্টর ওশিমেহ, পিওটর জিয়েলিনস্ক ও এলিফ এলমাসের গোলে ঘরের মাঠ দিয়েগো আরমান্ডো ম্যারাডোনা স্টেডিয়ামে ৫৮ মিনিটে ৩-০ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ইলিয়া নেস্তোরোভস্কি ও লাজার সামারজিকের দ্রুত দুই গোলে হঠাৎ করেই উদিনেস ম্যাচে ফিরে আসার ইঙ্গিত দেয়। শেষ আট মিনিট স্বাগতিক প্রায় ৫০ হাজার সমর্থক শুধুামাত্র ম্যাচ শেষের ক্ষন গননা করেছে।
ম্যাচ শেষে স্পালেত্তি বলেছেন, ‘প্রতিটি জয়ই কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে আসে। শেষ ১৫ মিনিটে একটি বিষয় অন্তত নিশ্চিত হয়েছে, আমরা যে  এ পর্যন্ত এসেছি তা অন্য দলগুলোর অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। আমরা মনে করেছিলাম ম্যাচ শেষ হয়ে গেছে। আর সে কারনেই হয়তোবা ঢিলেঢালা ভাব চলে এসেছিল। কিন্তু ম্যচ তখনো শেষ হয়ে যায়নি।’
এনিয়ে টানা ১১ লিগ ম্যাচে জয় ছিনিয়ে নিল নাপোলি। এর মাধ্যমে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এসি মিলান ও ল্যাজিওর থেকে পয়েন্টের ব্যবধানও বাড়লো। এ বছর সিরি-এ লিগের শেষ রাউন্ডের ম্যাচ শেষে স্পালেত্তির দল অন্তত আট পয়েন্টের ব্যবধানে এগিয়ে থাকা নিশ্চিত করেছে। এ পর্যন্ত অপরাজিত থাকা নাপোলি ১৫ ম্যাচে মাত্র চার পয়েন্ট হাতছাড়া করেছে। লিগের অন্যতম সেরা আক্রমন ভাগ নিয়ে খেলতে নেমে এ পর্যন্ত করেছেন ৩৭টি গোল।
এলমাসের ক্রস থেকে ১৫ মিনিটে গোল করে নাপোলিকে এগিয়ে দেন নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ওশিমেহ। এনিয়ে লিগে নবম গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে রয়েছে এই তরুণ স্ট্রাইকার। মাসখানেক আগে ইনজুরি থেকে ফেরার পর সব ধরনের প্রতিযোগিতায় এটি তার অষ্টম গোল। সিরি-এ  লিগে এ পর্যন্ত কোন দলের ফরোয়ার্ডরাই এ ধরনের ধারাবাহিক পারফরমেন্স দেখাতে পারেনি। জানুয়ারিতে আবারো সিরি-এ লিগ মাঠ গড়ালে নি:সন্দেহে ১৯৯০ সালের পর প্রথম লিগ শিরোপা জয়ে নাপোলিই ফেবারিট থাকবে।
এবারের মৌসুমে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা উইঙ্গার খাভিচা কাভারাটসখেইলাকে ছাড়া আরো একবার নাপোলি মাঠে নেমেছিল। মাসের শুরুতে চ্যাম্পিয়ন্স রিগে লিভারপুলের কাছে পরাজিত হবার পর থেকে ইনজুরির কারনে দলের বাইরে রয়েছে খাভিচা। এবারের মৌসুমে নাপোলির একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে তিনি ইনজুরির কারনে মাঠের বাইরে ছিটকে গেছেন।
২০০৪ সালে নাপোলি মালিকানা কিনে নেয়া অরেলিও ডি লরেনটিসও স্বীকার করেছেন এটি  তার সেরা দল। ম্যারাডোনা যুগ শেষ হবার পর মরিজিও সারির অধীনে ২০১৮ সালে সিরি-এ লিগের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যাওয়া দলটির সাথেই এবারের দলের মিল খুঁজে পাচ্ছেন অনেকেই।
টানা সাত ম্যাচে জয়বিহীন থাকা উদিনেস টেবিলের সপ্তম স্থানেই রয়েছে। পরাজয়ের পাশাপাশি ২৬ মিনিটে স্প্যানিশ এ্যাটাকার জেরার্ড ডেলোফে হাঁটুর ইনজুরিতে পড়ে মাঠত্যাগ করলে দু:শ্চিন্তা বাড়ে উদিনেসের। যদিও ম্যাচ শেষে কোচ আন্দ্রে সোত্তিল বলেছেন ইনজুরির মাত্রা ততটা গুরুতর নয়।
দিনের আরেক ম্যাচে সাম্পদোরিকে টানা চতুর্থ পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ দিয়েছে লেচ্চে। ঘরের মাঠে সাম্পদোরিয়া পরাজিত হয়েছে ২-০ গোলে। এই জয়ে লেচ্চে রেলিগেজন জোন থেকে আট পয়েন্ট দুরে থেকে টেবিলের ১৫তম স্থানে উঠে এসেছে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

বিশ্বকাপ উদ্বোধনের দিন উজবেবিস্তানের সাথে প্রীতি ম্যাচ খেলবে রাশিয়া

কাতারেই নিজের শেষ বিশ্বকাপ খেলার ইঙ্গিত দিলেন নেইমার