ভিতরে

মাল্টিমোডাল ওয়াটারওয়েজ সামিটে যোগ দিতে ভারতে গেছেন নৌ-প্রতিমন্ত্রী

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি ‘পিএম গতিশক্তি মাল্টিমোডাল ওয়াটারওয়েজ সামিট-২০২২’এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ ভারতের উত্তর প্রদেশের বারানাসিতে পৌঁছেছেন।
আগামীকাল ১১ নভেম্বর ভারতের উত্তর  প্রদেশের বারানাসিতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ভারতের বন্দর, নৌ ও জলপথ এবং আয়ুর্বেদ, ইয়োগা ও ন্যাচারোপ্যাথি, ইউনানী, সিদ্ধাহ, হোমিওপ্যাথি  (এ ওয়াই ইউ এস এইচ-আয়ুষ) মন্ত্রণালয় দু’দিনব্যাপী এ সামিটের আয়োজন করেছে।
ভারতের বন্দর, নৌ ও জলপথ এবং আয়ুষ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী সরবানান্দ সনোয়ালের আমন্ত্রণে প্রতিমন্ত্রী এ সম্মেলনে অংশ নিবেন। তিনি দু’সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রতিনিধিদলের অপর সদস্য হলেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক। তিনি ভারতের ইনল্যান্ড ওয়াটারওয়েজ অথরিটির চেয়ারম্যান সঞ্জয় বন্দোপাধ্যায়ের আমন্ত্রণে সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন। তিনি সম্মেলনে ‘বাংলাদেশ: ফোকাস অন রিজিওনাল কানেক্টিভিটি’ বিষয়ক বিশেষ অধিবেশনে বক্তব্য রাখবেন।
উল্লেখ্য, ভারত সরকার বিভিন্ন অংশীজনের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ‘পিএম গতিশক্তি মাল্টিমোডাল ওয়াটারওয়েজ সামিট-২০২২’এর আয়োজন করেছে। সম্মেলনে ভারতের রেল, সড়ক, জলপথ, বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা, ভেসেল অপারেটর, ই-কমার্স, ওয়্যারহাউজ  কোম্পনি, কার্গো কোম্পানি, বৃহৎ অবকাঠামো নির্মাণ প্রতিষ্ঠানসমূহের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিবৃন্দ অংশগ্রহণ করছেন।
বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করতে এ সম্মেলন সহায়ক ভূমিকা রাখবে। এছাড়া বিশেষ করে নৌপথ খাতে দু’দেশের মধ্যে অংশীদারিত্ব বৃদ্ধি ও জোরদারের ক্ষেত্রেও ভূমিকা রাখবে। 
বাংলাদেশ ও ভারতের চমৎকার অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক থাকায় নৌপথ ইকোসিস্টেমে সহযোগিতার মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানোর উল্লেখযোগ্য সম্ভাবনা রয়েছে। সরকারি ও বেসরকারি উভয় ক্ষেত্রেই এই প্লাটফর্মের সুবিধা নিতে এবং নৌপথ সেক্টরে তার সম্ভাবনা দেখাতে বাংলাদেশকে স্বাগত জানানো হয়েছে। 

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

সামসুল হক চৌধুরীর মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে সিটি ব্যাংকের কম্বল প্রদান