ভিতরে

ইউক্রেনের নাগরিকদের জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত করে রাশিয়া ‘মানবতা বিরোধী অপরাধ’ করেছে : অ্যামনেষ্টি

অ্যামনেষ্টি ইন্টারন্যাশনাল বৃহস্পতিবার বলেছে, রাশিয়ার দখলে নেওয়া ইউক্রেনের বিভিন্ন এলাকা থেকে দেশটির নাগরিকদের জোরপূর্বক অন্য বাস্তুচ্যুত করে মস্কো সম্ভবত মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করেছে। খবর এএফপি’র।
সংস্থাটি জানায়, রাশিয়া আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন লঙ্ঘন করে অধিকৃত ইউক্রেন থেকে বেসামরিক নাগরিকদের রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত বিভিন্ন এলাকায় বা সরাসরি রাশিয়ায় জোরপূর্বক স্থানান্তর এবং শিশুদেরকে তাদের পরিবার থেকে আলাদা করেছে।
অ্যামনেষ্টি জানায়, ইউক্রেনের বেসামরিক নাগরিকরা তাদেরকে জানিয়েছিল যে তারা ‘অপমানজনক স্ক্রীনিং প্রক্রিয়ার’ শিকার হয়েছে। এ সময় দেশটির অনেক নাগরিক নির্বিচারে আটক, নির্যাতনের এবং অন্যান্য খারাপ আচরণের শিকার হয়।
সংস্থাটির মহাসচিব অ্যাগনেস ক্যালামার্ড বলেন, ‘শিশুদেরকে তাদের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন করা এবং বেসামরিক নাগরিকদের তাদের ঘরবাড়ি থেকে জোরপূর্বক শত শত কিলোমিটার দূরে সরিয়ে দেওয়া রাশিয়ার আগ্রাসনের আরেকটি বড় প্রমাণ। এর ফলে ইউক্রেনের বেসামরিক নাগরিকদের অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।’
তিনি বলেন, এক্ষেত্রে ‘রাশিয়ার জোরপূর্বক স্থানান্তর এবং নির্বাসনের দুঃখজনক কৌশল যুদ্ধাপরাধের শামিল। অ্যামনেষ্টি ইন্টারন্যাশনাল মনে করে যে এটি মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে অবশ্যই তদন্ত হওয়া উচিত।’

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

কপ-২৭-এর ভবিষ্যৎ জলবায়ু অর্থায়নের বিষয়ে দেশগুলো বিভক্ত

ইউক্রেনে এক লাখেরও বেশি রুশ সৈন্য নিহত কিংবা আহত হয়েছে : শীর্ষ মার্কিন জেনারেল