ভিতরে

এইচএসসি’র প্রশ্নপত্রে সাম্প্রদায়িক উস্কানিতে জড়িত ৫ জন চিহ্নিত

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসির বাংলা প্রথমপত্রে সাম্প্রদায়িক  বিদ্বেষমূলক প্রশ্নপত্রটি যশোর শিক্ষা বোর্ড থেকে করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রশ্নপত্র তৈরি ও পরিশোধনকারী ৫ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে।
ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার আজ বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থাকে (বাসস) এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
অভিযুক্ত প্রশ্নপত্র প্রণেতা হলেন, ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুরের ডা. সাইফুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার পাল।
অন্য চারজন প্রশ্নপত্র পরিশোধনকারী হলেন, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের সহযোগী অধ্যাপক সৈয়দ তাজ উদ্দিন  শাওন, সাতক্ষীরা সহকারী মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক মো. শফিকুর রহমান, নড়াইলের মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের সহকারী অধ্যাপক শ্যামল কুমার ঘোষ এবং কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা আদর্শ কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম।
তপন কুমার সরকার বলেন, ‘ঢাকা বোর্ডে এইচএসসি বাংলা প্রথমপত্র পরীক্ষার প্রশ্নপত্র নিয়ে যে বিতর্ক চলছে এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের একটা প্রচেষ্টা চলছিল। অভিযুক্তরা সবাই যশোর বোর্ডের। এই ঘটনায় যশোর বোর্ড থেকে একজন প্রশ্নপত্র প্রণেতা এবং চারজন প্রশ্নপত্র মডারেটর বা পরিশোধনকারী শনাক্ত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘এই ধরনের কর্মকান্ড শাস্তিযোগ্য অপরাধ। শিগগিরই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিবে সংশ্লিষ্ট বোর্ড। যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যানকে এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য সুপারিশ করেছি। এসব ক্ষেত্রে শিক্ষাবোর্ডগুলোকে আমরা সুপারিশ করতে পারি। কিন্তু এটা কার্যকর করে শিক্ষামন্ত্রণালয়।’
উল্লেখ্য, গত ৬ নভেম্বর রোববার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর প্রথম দিনে বাংলা প্রথমপত্র পরীক্ষা তাতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের  প্রশ্নপত্রের সৃজনশীল অংশে একটি প্রশ্নে সাম্প্রদায়িক উস্কানির অভিযোগ উঠেছে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

বর্তমান সরকারের সময়ে গণমাধ্যম সবচেয়ে বেশি বিকশিত হয়েছে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

আরডিএ-র ৩৭৭ কোটি ৭৯ লাখ টাকার চারটি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন