ভিতরে

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: জিম্বাবুয়েকে হারাতে ছোট-ছোট মুহূর্তগুলো জয়ের অস্ত্র হিসেবে দেখছেন শ্রীরাম

আগের ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে বড় হারের পরও মুষড়ে পড়তে রাজি নয় বাংলাদেশ। আগামীকাল ব্রিজবেনের গাব্বাতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জ্বলে উঠতে বদ্ধ পরিকর বাংলাদেশ।
এই ফরম্যাটে দুর্বল হওয়া সত্ত্বেও সেমিফাইনালের দৌড়ে টিকে থাকার জন্য এ ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের জন্য।
পাকিস্তানের বিপক্ষে এক রানের ঐতিহাসিক জয়ে আত্মবিশ্বাসী হয়েই বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামবে জিম্বাবুয়ে। অন্য দিকে আগের ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১০৪ রানের রেকর্ড ব্যবধানে হাারের লজ্জা নিয়ে এ ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ।
পেশাদার খেলায় আবেগের কোন স্থান নেই বলেই মানসিকভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে থাকবে, জানালেন দলের টেকনিক্যাল পরামর্শক শ্রীধরন শ্রীরাম।
আজ শ্রীরাম বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের কাছে হারের পরের ম্যাচে শ্রীলংকাকে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। এটি একটি উদাহরণ, যা আমরা নিতে পারি।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি টুর্নামেন্টের খেলায় আবেগের কোন স্থান নেই। একদিন আপনার খারাপ দিন যেতে পারে  পরের দিন সত্যিই আপনি  শক্তভাবে ঘুড়ে দাঁড়াতে পারেন। আমার মনে হয়র  এসব ভালোভাবেই জানে ছেলেরা। বড় ব্যবধানে জিতলে বা বড় ব্যবধানে হারলে, আপনাকে সেগুলো পেছনেই রাখতে হবে। কারন ঐসব অতীত। আমি মনে করি, আপনি পরের দিন জ¦লে উঠবেন, অনুশীলন, ভ্রমণ এবং খেলাধুলা করবেন। আমাদের দিক থেকে এসব কিছুই পরিবর্তন হয় না। আমরা এখনও জানি, আমাদের পরিকল্পনা কি। যতটা সম্ভব আমরা এখনও কঠোর অনুশীলন করছি। আমরা পরের ম্যাচের জন্য প্রস্তুত।’
শ্রীরাম জানান, জয় পেতে ছোট-ছোট মুূর্হূতগুলো ম্যাচের মোড় ঘুড়িয়ে দিতে পারে। প্রথম দুই ম্যাচে দুই ধরনের অভিজ্ঞতা পেয়েছে বাংলাদেশ। শ্রীরাম মনে করেন, এই ম্যাচে খেলার জন্য এসব সহায়ক হবে।
তিনি বলেন, ‘আমরা এসব সম্পর্কে কথা বলেছি। ছেলেরা জানে। আগের দুই ম্যাচে দুটি ভিন্ন দৃশ্যপট ছিল।  প্রথম ম্যাচে আমরা প্রথমে ব্যাট করেছি, আমাদের ভাল শুরু ছিল। আমার মনে হয়, দুর্ভাগ্যের জন্য সাকিব সেরাটা দিতে পারছে না। এমনটা ঘটেই থাকে।  গত ম্যাচে বিশাল স্কোর তাড়া করেছি আমরা এবং ছেলেরা জানে স্কোর বোর্ডের চাপ খুব বেশি ছিল।
সবশেষে শ্রীরাম বলেন, ‘এ ব্যপারে যেমনটা  আমি বলেছিলাম, ম্যাচটিকে ছোট-ছোট অংশে ভাগ করা, ছোট-ছোট মুর্হূতগুলো জয় করা এবং পরের দুই-তিন ওভার জয় করা। আমি মনে করি, এভাবেই  এসব নেয়া উচিত এবং ছেলেরা এভাবেই শিখবে। যেটা ভবিষ্যতের জন্য ভাল হবে।’

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: আশা বাঁচিয়ে রাখতে দুরন্ত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ মাঠে দর্শকদের  করোনা পরীক্ষা লাগছে না