ভিতরে

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: সিটির সাথে ড্র করে নক আউট পর্বে ডর্টমুন্ড

 ডিফেন্ডার ম্যাটস হামেলসের নৈপুন্যে ম্যানচেস্টার সিটির সাথে গোলশূন্য ড্র করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক আউট পর্ব নিশ্চিত করেছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। ম্যাচের পর তাই হামেলসের প্রশংসা করতে ভুল করেননি বরুসিয়া কোচ এডিন টারজিক।
দ্বিতীয়ার্ধে রিয়াদ মাহারেজের পেনাল্টি রুখে দেন ডর্টমুন্ড গোলরক্ষক গ্রিগর কোবেল। সিটির উড়তে থাকা তারকা আর্লিং হালান্ডকে কাল অনেকটা  একাই সামাল দিয়েছেন হামেলস। এসবই ডর্টমুন্ডের লড়াকু মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে। আর গুরুত্বপূর্ণ এক পয়েন্টে পাঁচ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে সিটির সাথে নক আউট পর্বে পৌঁছে গেছে জার্মান জায়ান্টরা। 
হালান্ডকে বেশ কয়েকবার রুখে দিয়ে সফল হতে দেননি সেন্টার-ব্যাক হামেলস। আর তাইতো টারজিক বলেছেন, ‘সে আজ দুর্দান্ত খেলেছে।’
দ্বিতীয়ার্ধে হালান্ডকে বদলী বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন পেপ গার্দিওলা। যদিও সিটি বস ম্যাচ শেষে বলেছেন সামান্য ইনজুরির কারনে হালান্ডকে নিয়ে আর কোন ঝুঁকি তিনি নিতে চাননি। টারজিক আরো বলেন, ‘আমরা ধারাবাহিকভাবে সিটিকে প্রতিরোধ করেছি। যা শেষ পর্যন্ত বজায় ছিল। আজ আমরা খুব কমই তাদের গোলের সুযোগ করতে দিয়েছি। সৌভাগ্যবশত : পেনাল্টি রুখে দিয়ে কোবেল তার দায়িত্ব পালন করেছেন। এটা দারুন একটি সমন্বিত পারফরমেন্স ছিল। যে কারনে পাঁচ ম্যাচ পর নক আউট পর্বের জায়গাটা আমাদের প্রাপ্য ছিল।’
গ্রুপ-জি’তে তিন পয়েন্টে এগিয়ে থেকে প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন সিটি হেড-টু-হেড রেকর্ডে এগিয়ে থেকে শীর্ষস্থান নিশ্চিত করেছে। এই ম্যাচেই আগেই অবশ্য সিটি নক আউট পর্বে পৌঁছে গিয়েছিল। আর সে কারনেই পেপ গার্দিওলা অনেকটা পরিবর্তিত দল নিয়ে মাঠে নেমেছিল। কেভিন ডি ব্রুইনা, জ্যাক গ্রীলিশ ও গোলরক্ষক এডারসন ছিলেন বদলী বেঞ্চে। এ কারনে আর্মিনিয়া বিয়েলেফেল্ডের সাবেক গোলরক্ষক স্টিফেন ওরটেগার কাল সিটির জার্সি গায়ে অভিষেক হয়েছে। 
গার্দিওলা বলেছেন, গ্রীষ্মে দলবদলের পর ডর্টমুন্ডের হলুদ দেয়ালের বিপক্ষে হালান্ড প্রথমবারের মত সিগনাল ইডুনা পার্কে খেলতে নেমেছিল। প্রথমার্ধের শেষে কিছুটা ব্যাথা পাওয়ায় তাকে মাঠ থেকে উঠিয়ে নেয়া হয়। দিনের শুরুতে আরেক ম্যাচে  কোপেনহেগেনকে সেভিয়া ৩-০ গোলে পরাজিত করায় ডর্টমুন্ডের সামনে নক আউট পর্বে যেতে মাত্র এক পয়েন্টের প্রয়োজন ছিল। দলের দুই টিনএজার করিম আদেইয়েমি ও ইউসুফা মুকোকো প্রথমার্ধে দু্িট সহজ সুযোগ নষ্ট করেন। সাবেক লিভারপুল মিডফিল্ডার এমরে কান সিটির কাউন্টার এ্যাটাক আটকাতে হিমশিম খাচ্ছিলেন। এই সুযোগে ৫৬ মিনিটে পেনাল্টি আদায় করে নেয় সিটি। কিন্তু আলজেরিয়ান মাহারেজের শট রুখে দিয়ে সিটিকে সফল হতে দেননি সুইস গোলরক্ষক কোবেল। ম্যাচের শেষ ভাগে উভয় দল কিছু সুযোগ পেয়েও তা কাজে লাগাতে পারেনি। আর এতেই সেভিয়া ও কোপেনহেগেনকে বিদায় করে সিটি ও ডর্টমুন্ড পরের রাউন্ডের টিকিট নিশ্চিত করেছ। 
ডর্টমুন্ডের ইংলিশ মিডপিল্ডার জুড বেলিংহাম বলেছেন বিশে^র সেরা একটি দলের বিপক্ষে তার দলের পারফরমেন্স টুর্নামেন্টে আরো দুর যাবার ইঙ্গিত দিয়েছে। এ সম্পর্কে বেলিংহাম বলেন, ‘আমরা এটিকে মোটেই স্বস্তিদায়ক হিসেবে দেখছি না। এর থেকেও বেশীদুর নিজেদের নিয়ে যেতে চাই।’
আগামী সপ্তাহে গ্রুপের শেষ ম্যাচে ডর্টমুন্ড কোপেনহেগেন সফরে যাবে, ম্যান সিটি আতিথ্য দিবে সেভিয়াকে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: মেসি, এমবাপ্পের জোড়া গোলে পিএসজির বড় জয়

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সিডনিতে অভিষেক স্মরণীয় করে রাখতে চায় বাংলাদেশ