ভিতরে

সুপার টুয়েলভের পথ মসৃন করার লক্ষ্য নিয়ে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামছে স্কটল্যান্ড

 নিজেদের প্রথম ম্যাচে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে অঘটনের জন্ম দিয়ে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপ মিশন শুরু করেছে স্কটল্যান্ড। এরপর প্রথম রাউন্ডে ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কাল আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে স্কটল্যান্ড। আইরিশদের হারিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে সুপার টুয়েলভে খেলার পথ মসৃন করতে চায় স্কটিশরা। অন্য দিকে হার দিয়ে আসর শুরু করলেও সুপার টুয়েলভের  আশা বাঁচিয়ে রাখতে জিততে মরিয়া আয়ারল্যান্ড। 
হোবার্টে বেলেরিভ ওভালে বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় শুরু হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও স্কটল্যান্ড ম্যাচটি।
টি-টোয়েন্টিতে প্রথমবারের মত মুখোমুখি হয়েছিল  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও স্কটল্যান্ড। ক্যারিবীয়রা যেখানে বিশ^ চ্যাম্পিয়ন, সেখানে টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপে ১৫ ম্যাচে স্কটল্যান্ডের জয় ৪টি। তাই পরিসংখ্যান-শক্তির বিচারে স্কটল্যান্ডের চেয়ে সবদিক দিয়ে এগিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু ২২ গজে লড়াইয়ে সব হিসাব-নিকাশ পাল্টে দেয় স্কটল্যান্ড।  
পরিকল্পনামাফিক খেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৪২ রানে হারিয়ে দেয় স্কটল্যান্ড। বোলারদের দুর্দান্ত বোলিং ছিলো চোখের পড়ার মত। ফিল্ডিং সেট আপের সাথে মিল রেখে লাইন-লেন্থ বজায় রেখে বল করেন তারা। স্কটিশ বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের নামী-দামি ব্যাটাররা। ৯ বল বাকী থাকতে ১১৮ রানে গুটিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর আগে প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেটে ১৬০ রান করেছিলো স্কটল্যান্ড। ওপেনার জর্জ মুনসে ৯টি চারে ৫৩ বলে সর্বোচ্চ ৬৬ রান করেন। 
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অঘটন ঘটিয়ে উজ্জীবিত স্কটল্যান্ড। তাই জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে এবারের আসরেও সুপার টুয়েলভ পর্ব  নিশ্চিত করতে  মরিয়া তারা। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেও নিজেদের সেরাটা দিতে চায় স্কটল্যান্ড। দলের অধিনায়ক রিচার্ড বেরিংটন বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জয় আমাদের জন্য ঐতিহাসিক। নিজেদের পরিকল্পনাগুলো দারুনভাবে কাজে লাগিয়েছি আমরা। পরের ম্যাচেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে। আমরা টানা দ্বিতীয়বারের মত সুপার টুয়েলভে খেলতে চাই।’
গত বিশ^কাপে চমক দেখিয়েছিলো স্কটল্যান্ড। গ্রুপ পর্বে ৩ ম্যাচের সবক’টিতেই জিতেছিলো তারা। বাংলাদেশ, ওমান ও পাপুয়া নিউ গিনিকে হারায় স্কটল্যান্ড। 
তবে সুপার টুয়েলভে ৫ ম্যাচ খেলে জয়শূন্য ছিলো স্কটল্যান্ড। প্রথমবারের মত বিশ^কাপ খেলতে নামা পুঁচকে নামিবিয়ার কাছেও হারতে হয়েছিলো স্কটিশদের। 
অন্য দিকে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের কাছে ৩১ রানে হারে আয়ারল্যান্ড। আইরিশ বোলাররা শুরুতে ভালো করলেও পরবর্তীতে  জিম্বাবুয়ের সিকান্দার রাজার খুনে ব্যাটিংয়ের সামনে লড়াই করতে পারেনি আয়ারল্যান্ড বোলাররা। রাজার ৪৮ বলে ৮২ রানের সুবাদে ৭ উইকেটে ১৭৪ রানের সংগ্রহ পায় জিম্বাবুয়ে। 
বড় টার্গেটে জ¦লে উঠতে পারেনি আয়ারল্যান্ডের ব্যাটাররা। ব্যাটাররা ছোট-ছোট ইনিংস খেললে ৯ উইকেটে ১৪৩ রানে তুলে আয়ারল্যান্ড। 
তবে পরের ম্যাচেই ঘুড়ে দাঁড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন আয়ারল্যান্ডের অধিনায়ক এন্ডি ব্যালবির্নি। তিনি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচে দলের ব্যাটাররা ভালো করতে পারেনি। আশা করি, দল লড়াইয়ে ফিরবে। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা আক্রমনাত্মক ক্রিকেট খেলবো। কারন এ ম্যাচ আমাদের জিততেই হবে।’
গত আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিশ^কাপ শেষ করে আয়ারল্যান্ড। তিন ম্যাচের মধ্যে ২টিতে হারে তারা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসকে হারিয়েছিলো আয়ারল্যান্ড। 
টি-টোয়েন্টিতে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে এগিয়ে আয়ারল্যান্ডই। এখন পর্যন্ত দু’দল ১৩বার মুখোমুখি হয়েছে। তাতে ৭টি জয় আয়ারল্যান্ডের। ৩টি জয় স্কটল্যান্ডের। ১টি ম্যাচ টাই ও ২টি পরিত্যক্ত হয়। 
এ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে স্কটল্যান্ড জিতলে এবং দিনের পরের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ে জিতলে, আগেভাগেই এই ‘বি’ গ্রুপ থেকে সুপার টুয়েলভে কারা খেলবে সেটি নিশ্চিত হয়ে যাবে। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচের আগেই স্কটল্যান্ড-জিম্বাবুয়ে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করবে।  
স্কটল্যান্ড দল : রিচার্ড বেরিংটন (অধিনায়ক), ম্যাথু ক্রস (সহ-অধিনায়ক), জর্জ মুনসে, মাইকেল লিস্ক, ব্রাডলি হুইল, ক্রিস সোল, ক্রিস গ্রেভস, সাফিয়ান শরিফ, জশ ডেভি, কালাম ম্যাকলিওড, হামজা তাহির, মার্ক ওয়াট, ব্রেন্ডন ম্যাকমুলেন, মাইকেল জোনস ও ক্রিস ওয়ালাস।
আয়ারল্যান্ড দল : এন্ডি ব্যালবির্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাইডার, কার্টিস ক্যাম্ফার, গ্রেথ ডেলেনি, জর্জ ডকরেল, স্টিফেন ডোহেনি, ফিওন হ্যান্ড, জস লিটল, ব্যারি ম্যাকার্থি, কনর ওলফার্ট, সিমি সিং, পল স্টার্লিং, হ্যারি টেক্টর, লরকান টাকার ও ক্রেইগ ইয়ং। 

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

লড়াই করে শেষ ওভারে নেদারল্যান্ডসের কাছে হারলো নামিবিয়া

২০২৩ এশিয়ান কাপের স্বাগতিক হিসেবে দায়িত্ব পেল কাতার