ভিতরে

প্রীতি ম্যাচ: তিউনিশিয়াকে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে ব্রাজিল

প্যারিসে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে এবার তিউনিশিয়াকে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে ব্রাজিল। ঘরের মাঠ পার্ক ডি প্রিন্সেসে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হয়ে স্কোরশিটে নাম লিখিয়েছেন পিএসজির তারকা স্ট্রাইকার নেইমার। 
যদিও ব্রাজিলিয়ান খেলোয়াড়রা পুরো ম্যাচে খুব একটা স্বস্তিতে ছিলেন না। এমনিতেই বেশ কিছুদিন ধরে টটেনহ্যাম হটস্পারের ফরোয়ার্ড রিচারলিসনের বিপক্ষে সমর্থকদের বর্ণবাদী আচরণের  অভিযোগে দলের মধ্যেও বিষয়টি নিয়ে খেলোয়াড়রা বেশ বিপাকে রয়েছে। কালও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ১৯ মিনিটে রিচারলিসন যখন ব্রাজিলের হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেন তখন গ্যালারি থেকে তাকে লক্ষ্য করে কলা ছুঁড়ে মারার অভিযোগ করেছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (সিবিএফ)। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি উত্থাপন করে সিবিএফ আবারো বর্ণবাদের বিপক্ষে নিজেদের শক্ত অবস্থানের জানান দিয়েছে। এমনকি ব্রাজিলিয়ান খেলোয়াড়দের লক্ষ্য করে দুইবার লেজার পেন পয়েন্ট করার কারনে প্রথমার্ধে অল্প সময়ের জন্য ম্যাচ বন্ধ ছিল। 
ম্যাচের শুরু থেকেই তিউনিশিয়ার ওপর চেপে বসে সেলেসাওরা। কাতার বিশ্বকাপের আগে নিজেদের শেষ প্রস্তুতিটা যেন জোড়ালো ভাবে হয়, সেই লক্ষ্য থেকেই রাফিনহার দুই গোলের সাথে নেইমার, রিচারলিসন ও পেড্রো স্কোরশিটে নাম লিখিয়েছেন। এই গোলের মাধ্যমে পেলের সর্বকালের সর্বোচ্চ ৭৭ গোলের রেকর্ড থেকে নেইমার এখন আর মাত্র দুই গোল দুরে রয়েছেন। দ্বিতীয়ার্ধে বদলী হিসেবে খেলতে নেমে শেষ গোলটি করেছেন পেড্রো। 
ম্যাচ শেষে ব্রাজিলের অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা বলেছেন, ‘এটা সত্যিই লজ্জার। স্টেডিয়াম জুড়ে এই ধরনের দৃশ্য দেখাটাও কঠিন এক অনুভূতি। দূর্ভাগ্যবশত: বলতে হয় আমরা মানুষের মানসিকতার পরিবর্তন করতে পারবো না, এতে আমাদের কোন হাত নেই। আশা করছি তারা নিজেরাই সেটা বুঝতে পারবো। অতীতেও এই বিষয়গুলো বেশীদুর যেতে পারেনি। আমাদের অবশ্যই পরিবর্তিত হতে হবে।’
আগামী ২৪ নভেম্বর সার্বিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ-জি’র ম্যাচে বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু করবে তিতের ব্রাজিল। টানা ১৫ ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড নিয়ে ব্রাজিল কাতারে যাচ্ছে। গত বছর আর্জেন্টিনার বিপক্ষে কোপা আমেরিকার ফাইনালে তারা সর্বশেষ পরাজিত হয়েছিল। 
ম্যাচ শুরুর আগে ব্রাজিলের জাতীয় সঙ্গীত বাজানোর সময় তিউনিশিয়ার বেশ কিছু সমর্থক বিরোধীতা করে স্লোগান দিতে থাকে। ম্যাচের উত্তেজনা তখন থেকেই শুরু। এ স¤পর্কে তিতে বলেন, ‘আমি হতবাক হয়ে গেছি, নূন্যতম সম্মান আজ তাদের মধ্যে ছিলনা। ফুটবল এমন একটি খেলা যেখানে ভাতৃত্ববোধ অনেক বড় একটি বিষয়।’
সব বাঁধাকে উপেক্ষা করে মাঠের লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত জয় হয়েছে ব্রাজিলেরই। ১২ মিনিটে বার্সেলোনা উইঙ্গার রাফিনহা তিউনিশিয়ার গোলরক্ষক আয়মেন ডাহমেনকে পরাস্ত করলে এগিয়ে যায় সেলেসাওরা। ছয় মিনিটের মধ্যে জালেল কাদরির দল ম্যাচে ফিরে আসে। আনিস সিলমানের আউটসুইংগিং ফ্রি-কিক থেকে ডিফেন্ডার মোনটাসার তালবির শক্তিশালী হেড ধরতে পারেননি এ্যালিসন। মিনিটখানেকের মধ্যেই আবারো এগিয়ে যায় ব্রাজিল। রাফিনহার পাস থেকে রিচারলিসন এবার ব্রাজিলকে এগিয়ে দেন। ঘানার বিপক্ষে আগের ম্যাচে দুই গোল করার এটি ছিল দুই ম্যাচে রাফিনহার তৃতীয় গোল। এই গোলের পর তিউনিশিয়ান সমর্থকদের সামনে গিয়ে রিচারলিসন আনন্দ করতে থাকলে তার দিকে কলা ছুঁড়ে মারা হয়। যদিও সাথে সাথে নিরাপত্তা কর্মীদের তৎপরতায় বিষয়টি বেশীদুর গড়াতে পারেনি। কর্ণার থেকে ক্যাসেমিরোকে ডি বক্সের মধ্যে ফাউলের অপরাধে তিউনিশিয়ার বিপক্ষে পেনাল্টি আদায় করে নেয় ব্রাজিল। স্পট কিক থেকে নেইমার ক্যারিয়ারের ৭৫তম আন্তর্জাতিক গোল করতে ভুল করেননি। ৩-১ গোলে এগিয়ে থেকেও তিউনিশিয়ার রক্ষনভাগে একের পর এক আক্রমন চালাতে থাকে ব্রাজিল। ৪০ মিনিটে রাফিনহার গোলে ৪-১ গোলে এগিয়ে যায় তিতের দল। ৪২ মিনিটে নেইমারকে বাজেভাবে ফাউলের অপরাধে সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠের বাইরে চলে যান ডিফেন্ডার ডাইলান ব্রন। 
বিরতির পর তিউনিশিয়া কিছুটা হলেও ছন্দে ফিরে আসে। কিন্তু ম্যাচ শেষের ১৬ মিনিট আগে ফ্লামেঙ্গো ফরোয়ার্ড পেড্রোর গোলে ব্রাজিলের বড় জয় নিশ্চিত হয়। ব্রাজিলের জার্সি গায়ে এটি পেড্রোর প্রথম আন্তর্জাতিক গোল। 

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

নেশন্স লিগ: মোরাতার শেষ মুহূর্তের গোলে পর্তুগালকে হারিয়ে ফাইনালে স্পেন, রেলিগেশন এড়াতে পারলো না চেক

ভারত-পাকিস্তান টেস্ট সিরিজের কোন সম্ভাবনা নেই : বিসিসিআই