ভিতরে

অধিনায়কত্ব নিয়ে কখনো চিন্তাও করেননি স্টোকস

গত মাসেই ইংল্যান্ডের ৮১তম টেস্ট অধিনায়ক হয়েছেন অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। অধিনায়ক হয়েই দলকে সাফল্যের ধারায় এনেছেন তিনি। অথচ দলের অধিনায়কত্ব করার  বিষয়টি  তিনি আগে কখনো  চিন্তাই করেননি।
ঘরের মাঠে নিজের প্রথম অ্যাসাইনমেন্টে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে স্টোকস এন্ড কোং। তবে ক্রিকেট ক্যারিয়ারে কখনও অধিনায়কত্ব নিয়ে চিন্তাও করেননি স্টোকস। যা অকপটে স্বীকার করলেন তিনি। 
গেল বছর টেস্টে মাত্র ৪টি জয় ছিলো ইংল্যান্ডের। এ বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে টেস্ট সিরিজ হারে ইংলিশরা। এরপর  নিজ থেকেই অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেন জো রুট। তার জায়গায় অধিনায়ক স্টোকস। 
স্টোকসে নেতৃত্বে জয়ের ধারায় ফিরলো ইংল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্টেই দারুন জয় ছিলো ইংলিশদের। যেখানে  ব্যাটার-বোলারদের সাথে স্টোকসের অধিনায়কত্বের মুন্সিয়ানা  ছিলো ব্যাপক। 
তবে অধিনায়কত্ব নিয়ে কোন স্বপ্ন ছিলো না স্টোকসের। বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘না, এমনকি আমার দ্বিতীয় চিন্তাতেও এটি ছিলো না। আমি সম্ভবত ঐ বয়সে শুধুই ভাবতাম, পরের দিন আমি কি করবো।’
দুই ম্যাচেই  ৫ উইকেটের জয় পেয়েছে  ইংল্যান্ড। তবে দ্বিতীয় টেস্টে ২৯৯ রানের টার্গেট ৫০ ওভারেই স্পর্শ করে ফেলে ইংলিশরা। ৯২ বলে ১৩৬ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন জনি বেয়ারস্টো। দলের জয়ে অবদান ছিলো স্টোকসেরও। ৭০ বলে অনবদ্য ৭৫ রান করেন স্টোকস।  
গত বছর টেস্টে খারাপ করায়, অনেকেই ইংল্যান্ড দলের  প্রতি নাখোশ ছিলেন।  তবে ইংল্যান্ড ক্রিকেটের নতুন যুগ শুরু হবার কারনে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে গ্যালারি ঠাসা ছিলো। তাই স্টোকস মনে করেন, ক্রিকেটের সবচেয়ে ভালো বন্ধু হলো দর্শক। ক্রিকেটই তাদের ধরে রাখতে পারে। 
স্টোকস বলেন, ‘আমি মনে করি, ক্রিকেট সবসময়ই ভক্তদের ধরে রাখারা জন্য সবচেয়ে সহজলভ্য খেলাগুলির মধ্যে একটি। যা ভক্তরা নিজেদের টিভি স্ক্রিনে দেখতে পারে। খেলোয়াড় হিসেবে, আমার সেখানে থাকা এবং খেলার চেয়ে বড় দায়িত্ব পেয়েছি।’

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

ওয়ানডে: নিশাঙ্কার দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে লিড নিলো শ্রীলংকা

দ্বিতীয় টেস্টের দলে শরিফুল ইসলাম