ভিতরে

চট্টগ্রামে পাহাড় ধসে ৪ জন নিহত

 চট্টগ্রাম নগরের আকবর শাহ থানা এলাকায় পৃথক পাহাড় ধসে ৪ জন নিহত এবং আহত হয়েছে আরও ৭ জন। 
শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে নগরের আকবর শাহ থানার বরিশাল ঘোনা ও রাত ৩ টার দিকে ফয়’স লেকের বিজয় নগর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওয়ালি উদ্দিন আকবর। 
তিনি বলেন, শুক্রবার রাত ১ টার দিকে ১ নম্বর ঝিলের বরিশাল ঘোনা এলাকায় পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় পাঁচজনকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক দু’জনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত দু’জনের নাম- শাহিনুর আক্তার (২৬) ও মাইনুল আক্তার (২৪)। 
অন্যদিকে চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেন সিকদার বাসস’কে বলেন, রাত তিনটার দিকে আকবরশাহ থানার ফয়’স লেকের লেকসিটি বিজয় নগর এলাকায় পাহাড় ধসের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ৬ জনকে উদ্ধার করে। এদের মধ্যে লিটন (২৩) ও ইমন (১৪) নামে দু’জন ঘটনাস্থলে মারা যায়। অন্যদের চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। 
চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির তদারককারী কর্মকর্তা পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাদিকুর রহমান বলেন, শুক্রবার রাত ১টার দিকে নগরের আকবর শাহ থানার বরিশাল ঘোনা ও রাত ৩টার দিকে ফয়’স লেকের বিজয় নগর এলাকা থেকে পাহাড় ধসের ঘটনায় ৯ জনকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ২ জনকে মৃত ঘোষণা করে। বাকিরা হাসপাতালে বিভিন্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের অবস্থাও আশংকাজনক। 
এদিকে পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ চৌধুরী বলেন, আগামী ২০ জুন পর্যন্ত চট্টগ্রামের বিভিন্ন জায়গায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে। এরপর কিছুটা কমলেও থেমে থেমে বৃষ্টি হবে মাসজুড়েই। ভারী বর্ষণের ফলে চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের আশঙ্কার কথাও জানান এই কর্মকর্তা। 

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

স্বপ্নের পদ্মা সেতু: খুলনায় কয়েক লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে

চট্টগ্রামে ১২ জন করোনায় আক্রান্ত