ভিতরে

ধোনিকে সাদা বলে সর্বকালের সেরা অধিনায়ক বললেন শাস্ত্রি

 ভারতের সাবেক নেতা মহেন্দ্র সিং ধোনিকে সাদা বলের ক্রিকেটে সর্বকালের সেরা অধিনায়ক হিসেবে  অভিহিত  করেছেন  টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। 
ফ্যান কোড ডটকমে আলাপচারিতায় শাস্ত্রী জানান, সাদা বলের ক্রিকেটে ধোনির কাছাকাছিও কেউ নেই। অবশ্যই সর্বকালের সেরা অধিনায়ক সে। তাকে ‘দা কিং কং’ও বলা যাবে। 
যদি অধিনায়কত্ব একটি শিল্প হয় তবে ধোনি হলেন তার কারিগর। সাদা বলের ফরম্যাটে অধিনায়ক হিসেবে নিজেকে সেই উঁচুতে নিয়েছেন তিনি। 
২০০৪ সালে ওয়ানডে দিয়ে অভিষেক হয় ধোনির। ২০০৭ সালে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব পান তিনি। একই  বছর অধিনায়ক হিসেবে চমক দেখান ধোনি। ২০০৭ সালে প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতকে শিরোপার স্বাদ দেন ধোনি। 
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ওয়ানডেতেও ভারতকে সেরার মুকুট পড়ান ধোনি। ধোনির নেতৃত্বে ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতে ২৮ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটে ভারতের। এরপর ২০১৩ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ধোনির নেতৃত্বে শিরোপা জিতে ভারত। 
২০০৭ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ভারতকে ২০০ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন ধোনি। ১১০ ম্যাচে জয়, ৭৪টিতে হার ছিলো। আর ২০০৭ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়ক ছিলেন ধোনি। ৭২ ম্যাচে ৪১ জয় ও ২৮টি হার ছিলো। অধিনায়ক হিসেবে সাদা বলের ক্রিকেটে ধোনির রেকর্ড-পরিসংখ্যান দারুণ সমৃদ্ধ। 
তাই সাদা বলের ক্রিকেটে ধোনিকে সর্বকালের সেরা বলতে কোন দ্বিধাবোধ করছেন না শাস্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সাদা বলের ক্রিকেটে সর্বকালের সেরা অধিনায়ক ধোনি। আইসিসি টুর্নামেন্টগুলোয় তার রেকর্ড দেখুন। সে কোনটি জিতেনি? আইপিএল, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, আইসিসির সব  টুর্নামেন্ট, দু’টি বিশ্বকাপ। সাদা বলের ক্রিকেটে তার কাছাকাছিও কেউ নেই। অবশ্যই সে সর্বকালের সেরা। ‘দ্য কিং কং’, এভাবেও তাকে বলতে পারেন।’
মাঠে খেলার পরিস্থিতি কঠিন হলেও, অধিনায়কত্ব দিয়ে ধোনি বুঝিয়ে দেন সবকিছু নিয়ন্ত্রনে আছে, এমনই ধারনা শাস্ত্রীর। তিনি বলেন, ‘ধোনিকে যখন নেতৃত্ব দিতে দেখেন, এখন যেমন চেন্নাই সুপার কিংসকে দিচ্ছে আইপিএলে, একটা নিশ্চয়তা ও স্থিরতা ফুটে ওঠে যে সবকিছু নিয়ন্ত্রণে আছে। প্রতিপক্ষ চার-ছক্কার জোয়ার বইয়ে দিচ্ছে, তারপরও তার কাছে মনে হয় পরিস্থিতি নাগালে আছে।’
শুধুমাত্র সাদা বলের ক্রিকেটেই নয়, টেস্টেও অধিনায়ক হিসেবে চোখে পড়ার মত সাফল্য ছিলো ধোনির। তার নেতৃত্বে প্রথমবারের মত আইসিসি টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষেও উঠে ভারত। ৬০ ম্যাচে তার অধীনে ২৭টি জয় ও ১৮টি ম্যাচে হারে ভারত।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

ইংলিশ প্রিমিয়ার: আবারো পয়েন্ট হারালো ম্যানইউ, তালিকার শীর্ষে চেলসি

কুমিল্লায় যোগাযোগ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ হচ্ছে