ভিতরে

তিউনিশিয়ায় অবশ্যই টিকাদান কার্যক্রম জোরদার করতে হবে : ডব্লিউএইচও

তিউনিশিয়া তাদের দেশে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের সর্বশেষ ঢেউয়ের সবচেয়ে খারাপ অবস্থা অতিক্রম করে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে সরকারকে এখন টিকাদান কর্মসূচি অবশ্যই জোরদার করতে হবে। সোমবার ডব্লিউএইচও একথা জানিয়েছে। খবর এএফপি’র।
তিউনিশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ইভেস সৌটেরান্ড এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, দেশটির ‘মহামারী সংক্রান্ত উপাত্ত সঠিক পথে অগ্রসর হচ্ছে।’
তিউনেশিয়া ‘ করোনাভাইরাস সংক্রমণের সর্বোচ্চ চূড়া অতিক্রম করেছে বলে আমরা ধারণা করছি।’
অবশ্য ডব্লিউএইচও সতর্ক করে  বলেছে,  ভ্যাকসিনের স্বল্পতা, হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা ভেঙ্গে পড়া, অক্সিজেনের ব্যাপক ঘাটতি এবং উচ্চ সংক্রামক করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ক্রমবর্ধমানভাবে ছড়িয়ে পড়া অব্যাহত থাকায় তিউনিশিয়ার এক কোটি ২০ লাখ মানুষ স্বাস্থ্য সংক্রান্ত দুর্যোগের চরম ঝুঁকির মুখে রয়েছে।
সৌটেরান্ড জানান, দেশটিতে করোনাভাইরাসে সংক্রমণের ক্ষেত্রে ৯০ শতাংশেরও বেশি মানুষ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছে।
তিনি বলেন, এমন পরিস্থিতিতে টিকাদান কর্মসূচি জোরদার করা হচ্ছে প্রধান চ্যালেঞ্জ।’
তিনি জানান, দেশটিতে ১০ দিনে প্রায় ৭০ লাখ মানুষ টিকা নিয়েছে এবং শিগগিরই আরো ২০ থেকে ৩০ লাখ মানুষ টিকা নেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ দিবে জার্মানী

করোনা পরীক্ষা হবে উহানের সকল বাসিন্দার