ভিতরে

অলিম্পিক-সাঁতার : ড্রেসেলের পঞ্চম স্বর্ণ, ইতিহাস গড়লেন ম্যাককিওন

আরো দুটি স্বর্ণপদক জয়ের মাধ্যমে টোকিও অলিম্পিকে নিজের সেরাটাই যেন দিয়ে গেলেন মার্কিন সাঁতারু সেলেব ড্রেসেল। সব মিলিয়ে পাঁচটি স্বর্ণ পদক জয় করে তিনি যেন কিংবদন্তী সাবেক স্বদেশী মাইকেল ফেলপসকেই মনে করিয়ে দিলেন।
এদিকে ইতিহাস গড়ে এবারের টোকিও গেমস শেষ করেছেন অস্ট্রেলিয়ান সাঁতারু এমা ম্যাককিওন। প্রথম নারী সাঁতারু হিসেবে অলিম্পিকের এক আসরে তিনি সাতটি পদক জয়ের রেকর্ড গড়েছেন। 
শনিবার জাপানের পুলে ঝড় তুলে ড্রেসেল ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ২১.০৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে নতুন গেমস রেকর্ড গড়েছেন। বিশ্বের দ্রুততম এই সাঁতারু এরপর যুক্তরাষ্ট্রকে ৪ী১০০ মিটার মিডলে রিলেতে স্বর্ণ পদক উপহার দিয়েছেন। 
প্রতিযোগিতা শেষে ড্রেসেল বলেছেন, ‘আমি নিজেকে নিয়ে গর্বিত। আমি মনে করি প্রত্যাশা অনুযায়ী আমি এই গেসমে পারফর্ম করেছি। তবে পুরো সময়টা আমি দারুন উপভোগ করেছি, এটাই সবচেয়ে বড় বিষয়।’
এর আগে শুক্রবার ড্রেসেল নিজের বিশ্বরেকর্ড নিজেই ভঙ্গ করে ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে ক্যারিয়ার সেরা টাইমিং ৪৯.৪৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে প্রথম হয়েছিলেন। এছাড়া ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল ও ৪ী১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল রিলেতে যুক্তরাষ্ট্রকে স্বর্ণ উপহার দিয়েছেন ৬ ফিট ৩ ইঞ্চি উচ্চতার ২৪ বছর বয়সী এই মার্কিন সাঁতারু।
৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ২১.৫৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে ফরাসী সাঁতারু ফ্লোরেন্ত মানাউদু রৌপ্য ও ২১.৫৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রাজিলের ব্রুনো ফ্রাটুস ব্রোঞ্জ পদক জয় করেছেন। 
অপ্রত্যাশিত ভাবে এবারের নারীদের সাঁতার ইভেন্ট নিজেকে প্রমান করেছেন ২৭ বছর বয়সী নিউ সাউথ ওয়েলসের সাঁতারু ম্যাককিওন। শেষ দিনে ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়াকে ৪ী১০০ মিটার মিডলে রিলেতে স্বর্ণ পদক উপহার দিয়েছেন। ৫০ মিটারে  তার টাইমিং ছিল ২৩.৮১ সেকেন্ড। এই ইভেন্টে ২৪.০৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে সুইডেনের সারাহ সোস্ট্রেম রৌপ্য ও ২৪.২১ সেকেন্ড সময় নিয়ে ডেনমার্কের পারনিলে ব্লুম ব্রোঞ্জ পদক জয় করেছেন। 
এর মাধ্যমে ম্যাককিওন তার পদকের সংখ্যা সাত-এ  উন্নীত করেছেন। এর মধ্যে চারটি স্বর্ণ ও তিনটি ব্রোঞ্জ। এর আগে ১৯৫২ সালে পশ্চিম জার্মানীর ক্রিস্টিন ওটো ও ২০০৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাটালি কাফলিন অলিম্পিকের এক আসরে সর্বোচ্চ ছয়টি করে পদক জয় করছিলেন। 
একইসাথে তিনি একটি অলিম্পিক আসরে সব মিলিয়ে কোন নারী এ্যাথলেট হিসেবে সর্বোচ্চ পদক জয়ের রেকর্ডও স্পর্শ করেছেন। এই তালিকায় এর আগে এই রেকর্ড রয়েছে রাশিয়ান জিমন্যাস্ট মারিয়া গোরোখোভিসকায়ার। ১৯৫২ সালের হেলসিঙ্কি অলিম্পিকে মারিয়া এই রেকর্ড গড়েছিলেন। 
ম্যাককিওন ৫০ মিটার ও ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল ছাড়াও ৪ী১০০ মিটার রিলে ও মিডলেতে স্বর্ণ পদক জয় করেন। এছাড়া ১০০ মিটার বাটারফ্লাই ও আরো দুটি রিলেতে জিতেছেন ব্রোঞ্জ পদক। 
এবারের গেমসের অন্যতম আকর্ষণ এই অসি জলকণ্যা কাল প্রতিযোগিতা শেষে বলেছেন, ‘এটাই বাস্তবতা যে গেমস শেষ হয়ে গেল। সবকিছু এত দ্রুত শেষ হয়ে গেল যে বুঝতেই পারলাম না। সব মিলিয়ে আমি দারুন খুশী। আমার থেকে যারা অভিজ্ঞ তাদের প্রতিদিনই দেখার চেষ্টা করেছি। মনে হয় এখান থেকে অনেক কিছুই  আমি শিখতে পেরেছি। কখনই পরিসংখ্যান কিংবা পদকের সংখ্যার পিছনে দৌঁড়ায়নি। কঠোর পরিশ্রম করেই আমি এ পর্যন্ত এসেছি। শেষ পর্যন্ত দেশের জন্য কিছু করতে পারা সত্যিই গর্বের।’
সাঁতারের পরিপূর্ণ পদক তালিকায় ১১টি স্বর্ণসহ সর্বমোট ৩০টি পদক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষে রয়েছে। নয়টি স্বর্ণপদকসহ ২০টি পদক জয় করে এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সর্বশেষ রিও অলিম্পিকে যেখানে তারা মাত্র তিনটি স্বর্ণ পদক জয় করেছিল সে তুলনায় এবারের আসর সত্যিকার অর্থেই অস্ট্রেলিয়ান সাঁতারুদের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। এটাই অলিম্পিকে তাদের সেরা পারফরমেন্স। 
যদিও তার বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্র ১৬টি স্বর্ণপদকসহ রিও গেমসে ৩৩টি পদক জয় করেছিল। সে তুলনায় এবার তারা পিছিয়ে রয়েছে। ড্রেসেল এবং ক্যাটি লিডিকি যুক্তরাষ্ট্রকে পদকের শীর্ষে থাকতে দারুনভাবে সহযোগিতা করেছেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

সাত মাসেই বিশ্বরেকর্ড করে ফেললেন রিজওয়ান

প্রথম সুইস হিসেবে নারী টেনিস এককে স্বর্ণপদক জয় করে বেনসিসের ইতিহাস