ভিতরে

মাদ্রাসার গ্রন্থাগারিকেরাও পেলেন শিক্ষকের মর্যাদা, বেতন গ্রেড–৯

‘গ্রন্থাগার প্রভাষক’ গ্রেড–৯ এবং ‘সহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান)’ গ্রেড–১০ এ বেতন ভাতা পাবেন।

বেসরকারি স্কুল-কলেজের পর এবার মাদ্রাসার লাইব্রেরিয়ান ও সহকারী লাইব্রেরিয়ানরাও শিক্ষকের মর্যাদা পেলেন। দাখিল মাদ্রাসায় নিয়োগ পাওয়া সহকারী লাইব্রেরিয়ান-ক্যাটালগার পদের নাম হবে গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান বিষয়ের সহকারী শিক্ষক। আলিম মাদ্রাসার লাইব্রেরিয়ান পদের নাম গ্রন্থাগার প্রভাষক হচ্ছে। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে (এনটিআরসিএ) এসব পদে নিয়োগের জন্য প্রার্থী বাছাইয়ের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। এসব নির্দেশনা দিয়ে আদেশ জারি করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ।

মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে আদেশটি সব মাদ্রাসায় পাঠিয়ে বিষয়টি জানানো হয়। ১৮ জুলাই জারি করা আদেশটি গতকাল রোববার প্রথমবারের মতো প্রকাশিত হলো।

মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের আদেশে বলা হয়েছে, বেসরকারি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জনবলকাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ (২৩ নভেম্বর, ২০২০ পর্যন্ত সংশোধিত) নীতিমালায় আগের সহকারী গ্রন্থাগারিক পদটি সহকারী শিক্ষক এবং আগের গ্রন্থাগারিক পদটি গ্রন্থাগার প্রভাষক পদ হিসেবে বিবেচিত হবে। এই পদ দুটিতে এনটিআরসিএর মাধ্যমে নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও উত্তীর্ণদের সনদ প্রদানসহ যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণপূর্বক নিজ নিজ অধিদপ্তরের চাহিদার অনুকূলে নিয়োগ সুপারিশ করতে হবে।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ আদেশ জারির আগে, অর্থাৎ ১৮ জুলাইয়ের আগে বিধি মোতাবেক যাঁদের নিয়োগ ফল প্রকাশ করে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে, তাঁরা যথাযথ প্রক্রিয়ায় আগের নিয়মে এমপিওভুক্ত হতে পারবেন। এ আদেশ জারির পর এসব পদে ম্যানেজিং কমিটি বা গভর্নিং বডির মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়া হলে তা অবৈধ নিয়োগ বলে বিবেচিত হবে এবং তাঁরা কোনোভাবেই এমপিওভুক্তির আওতায় আসবেন না।

নতুন শিক্ষক মর্যাদা পাওয়া পদগুলোয় নিয়োগ নিয়ে আদেশে বলা হয়েছে, ১৭তম নিবন্ধন পরীক্ষার অংশ হিসেবে এ দুটি পদে সংশোধিত এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী সিলেবাস প্রণয়নসহ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে। তবে, এ আদেশ জারির আগে, অর্থাৎ ১৮ জুলাইয়ের আগে বিধিমোতাবেক যাঁদের নিয়োগ ফল প্রকাশ করে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে, তাঁরা যথাযথ প্রক্রিয়ায় আগের নিয়মে এমপিওভুক্ত হতে পারবেন বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

দীর্ঘ অপেক্ষার পর গত ২৮ মার্চ জারি হওয়া বেসরকারি স্কুল-কলেজের এমপিও নীতিমালায় প্রথমবারের মতো শিক্ষকের মর্যাদা পান স্কুল ও কলেজে কর্মরত গ্রন্থাগারিক এবং সহকারী গ্রন্থাগারিক ও ক্যাটালগাররা। বেসরকারি স্কুল ও কলেজের এমপিও নীতিমালা ও জনবলকাঠামোতে গ্রন্থাগারিকদের পদের নতুন নাম ‘গ্রন্থাগার প্রভাষক’ এবং সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যটালগারদের পদের নতুন নাম ‘সহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান)’ করা হয়।

‘গ্রন্থাগার প্রভাষক’ গ্রেড–৯ ওবং ‘সহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান)’ গ্রেড–১০ এ বেতন ভাতা পাবেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

এক সেকেন্ডেই ৫০ হাজার মুভি ডাউনলোড

ইলিশে সয়লাব চাঁদপুরের মাছ ঘাট