ভিতরে

হাইতির প্রয়াত প্রেসিডেন্টের স্ত্রী চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন

হাইতির প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জোভেনেল মইসির স্ত্রী মার্টিন মইসি তার নিজ দেশ হাইতিতে ফিরেছেন। গুলিবিদ্ধ হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মিয়ামিতে চিকিৎসা নেওয়ার পর শনিবার তিনি দেশে ফিরেন। একজন কর্মকর্তা এ খবর জানান।
হাইতির পোর্ট-অ-প্রিন্স বিমানবন্দরে বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পরে নামেন মার্টিন। তাকে স্বাগত জানান দেশটির অন্তর্বতী প্রধানমন্ত্রী ক্লদ জোসেফ। এ সময়ে নিরাপত্তা এজেন্টরা তাকে ঘিরে ছিল।
হাইতির প্রেসিডেন্ট জোভেনেল মইসির (৫৩) বাড়িতে গত ৭ জুলাই অস্ত্রধারীরা হামলা চালিয়ে তাকে হত্যা করে।  এ সময় তার স্ত্রী মার্টিনও গুরুতর আহত হন । পরে তাকে হেলিকপ্টারে করে ফ্লোরিডার মিয়ামিতে নেওয়া হয়। সেখানে ১০ দিন ধরে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন তিনি।
এদিকে আগামী ২৩ জুলাই প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জোভেনেল মইসির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া হাইতির উত্তরাঞ্চলীয় ঐতিহাসিক শহর ক্যাপ হাইতিনে অনুষ্ঠিত হবে। এতে অংশ নেবেন মার্টিন।
মার্টিনের দেশে ফেরার একদিন আগে জোসেফ প্রেসিডেন্টের হত্যাকান্ডের বিচার করার অঙ্গীকার করেছেন। ইতোমধ্যে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ২০ জনেরও বেশি লোককে আটক করা হয়েছে। এদের অধিকাংশই ভাড়াটে খুনি।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

বৃটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর করোনা পজেটিভ

ভ্যাকসিন প্রদানে যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে গেছে ইইউ