ভিতরে

নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়ার আগে পরমাণু আলোচনা নয় : ইরান

ইরানের পরমাণু চুক্তি পুনরুদ্ধারে ভিয়েনায় যে আলোচনা চলছে আগস্টে তেহরানের নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়ার আগে তা পুনরায় শুরু হবে না।
ইরানের একজন কর্মকর্তা শনিবার এ কথা জানান।
ইরানের এ চুক্তি ২০১৫ সালে করা হয়। তা পুনরুদ্ধারে ইরানসহ বিশ্বের শক্তিধর দেশসমূহের অংশগ্রহণে ভিয়েনায় এপ্রিল থেকে আলোচনা শুরু হয়েছে।
ইরানের উপ-পররাষ্ট্র মন্ত্রী আব্বাস আরাগাছি টুইটারে বলেছেন, আমরা পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। নতুন প্রশাসন আসা পর্যন্ত ভিয়েনা আলোচনার জন্য অবশ্যই অপেক্ষা করতে হবে।
ইরানের পরমাণু আলোচনা দলেরও প্রধান তিনি। আরাগাছি আরো বলেন, প্রতিটি গণতন্ত্র এটাই দাবি করে।
উল্লেখ্য, জুনে অনুষ্ঠিত ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে উগ্র রক্ষণশীল ইব্রাহিম রাইসি জয়ী হন। আগামী ৫ আগস্ট তিনি বর্তমান মধ্যপন্থী প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির কাছ থেকে দায়িত্ব বুঝে নেবেন।
আন্তর্জাতিক অবরোধ থেকে রেহাই পাওয়ার বিনিময়ে ২০১৫ সালে ইরান সীমিত পর্যায়ে পরমাণু কর্মসূচি চালু রাখার শর্তে চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। কিন্তু সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালে চুক্তি বাতিল করে ইরানের ওপর একতরফা অবরোধ করে।
বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ক্ষমতায় এসে চুক্তিটি পুনরায় চালু করার আভাস দেন। চুক্তির অন্য অংশীদার ব্রিটেন, চীন, ফ্রান্স, জার্মানী ও রাশিয়া ভিয়েনায় ইরানের সাথে সরাসরি আলোচনায় অংশ নিচ্ছে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র পরোক্ষভাবে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

জার্মানিতে বন্যা ॥ বাভারিয়ার পূর্বাঞ্চলে জরুরি অবস্থা ঘোষণা

আফগান সংঘাতের রাজনৈতিক সমাধানের পক্ষে তালেবান নেতা