ভিতরে

চীন ও উত্তর কোরীয় নেতার সম্পর্ক জোরদারের অঙ্গীকার

চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এবং উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন দ’স ন.ুদেশের সম্পর্ককে নতুন পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছেন। 
চীন ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যকার সম্পর্ক চুক্তির ৬০ বছর পূর্তি উপলক্ষে উভয় নেতা এ অঙ্গীকার করেন। 
পিয়ংইয়ং এর রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে রোববার এ কথা বলা হয়।  
শি’র কাছে পাঠানো এক বার্তায় কিম বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আন্তর্জাতিক পরিস্থিতির নজিরবিহীন জটিলতা সত্ত্বেও উত্তরকোরিয়া ও চীনের আস্থা ও সম্পর্ক দিন দিন আরো জোরালো হচ্ছে। 
তিনি এশিয়া ও বিশ্বের বাদবাকী অংশে শান্তি ও স্থিতিশীলতা নিশ্চিতে চুক্তির ভূমিকার কথাও তুলে ধরেন। 
উত্তর কোরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা কেসিএনএ শি’র বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছে, দু’দেশের বন্ধুত্ব ও সম্পর্ককে নতুন পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার মধ্য দিয়ে তিনি উভয় দেশ ও তাদের জনগণের জন্য ‘বৃহত্তর সুখ’ নিয়ে আসার পরিকল্পনা করেছেন। 
উল্লেখ্য উত্তর কোরিয়ার দীর্ঘ দিনের বন্ধু চীন। এছাড়া বেইজিং র্অথনৈতিকভাবে পিয়ংইয়ংকে নিবিড় সহযোগিতা দিয়ে আসছে। এ দু’দেশের সম্পর্ক কোরীয় যুদ্ধের রক্তপাতের সঙ্গে সম্পর্কিত। 
দ’দেশ ১৯৬১ সালের ১১ জুলাই সশস্ত্র হামলার ঘটনার প্রেক্ষিতে বন্ধুত্বের চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। তৎকালীন চীনা নেতা মাও সেতুং এই সম্পর্ককে অত্যন্ত নিবিড় বলে উল্লেখ করেন।
তবে উত্তর কোরিয়ার পরমানু কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে চীনের সাথে পিয়ংইয়ং এর সম্পর্কে উঠানামা শুরু হয়। কিন্তু উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের আলোচনা স্থবির হওয়ার কারণে পিয়ংইয়ং ও বেইজিং সম্পর্ক জোরদারে আগ্রহী হয়।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

সুদান বন্দর নগরীতে বিস্ফোরণে ৪ জন নিহত

আফগানিস্তান থেকে সব সৈন্য প্রত্যাহার করেছে অস্ট্রেলিয়া