ভিতরে

পোশাক শিল্পের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে শিল্প পুলিশ ও বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দের আলোচনা

শিল্প পুলিশের প্রধান হিসেবে সদ্য যোগদানকৃত অতিরিক্ত মহা-পরিদর্শক (এডিশনাল আইজিপি) মো. শফিকুল ইসলাম আজ উত্তরায় বিজিএমইএ কমপ্লেক্সে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। 
সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তারা কোভিড প্রেক্ষাপট ও আসন্ন ঈদূল আযহা’কে সামনে রেখে পোশাক শিল্পের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন।
এসময় বিজিএমইএ সিনিয়র সহসভাপতি এস এম মান্নান (কচি), সহসভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম, সহসভাপতি (অর্থ) খন্দকার রফিকুল ইসলাম, সহসভাপতি মো. নাসির উদ্দিনসহ পরিচালকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এ সময় শিল্প পুলিশের পক্ষ থেকে আরও উপস্থিত ছিলেন উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মো. মাহাবুবুর রহমান, অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক এ কে এম আওলাদ হোসেন; পুলিশ সুপার (অপস এন্ড ইন্ট.) শোয়েব আহাম্মদ প্রমূখ।
বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, শিল্প পুলিশ শুরু থেকেই যেভাবে পোশাক শিল্পকে সহযোগিতা দিয়ে আসছে, তা অত্যন্ত প্রশংসাযোগ্য। বিশেষ করে, পোশাক শিল্পে সুষ্ঠু আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং শ্রমিক ও মালিকের মধ্যে সুষম সম্পর্ক বজায় রাখার বিষয়ে শিল্প পুলিশ গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে।  
আলোচনাকালে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ডিএমপি এলাকার মধ্যে উত্তরখান, দক্ষিণখান, মিরপুর, মালিবাগ, রামপুরা ও বাড্ডাসহ কিছু এলাকায় এখনও বেশ কিছু পোশাক কারখানা চালু আছে। এসব কারখানার জন্য ডিএমপি এলাকায় শিল্প পুলিশের একটি জোন বাড়ানো যায় কিনা, বিষয়টি বিবেচনার জন্য তিনি শিল্প পুলিশ প্রধানকে অনুরোধ জানান।
সভায় আসন্ন ঈদ-উল-আযহা’কে সামনে রেখে সম্ভাব্য শ্রম পরিস্থিতি বিষয়েও আলোচনা হয়।
শিল্প পুলিশের প্রধান মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, সকল পরিস্থিতিতে পোশাক শিল্পে সুষ্ঠু আইন-শৃঙ্খলা পরিবেশ নিশ্চিত রাখতে শিল্প পুলিশ দিনরাত কাজ করছে। পোশাক শিল্পের উৎপাদন কার্যক্রম যাতে কোনভাবে ব্যাহত না হয়, সেজন্য শিল্প পুলিশ সদা তৎপর রয়েছে। তিনি শিল্প পুলিশের পক্ষ থেকে পোশাক শিল্পকে সম্ভাব্য সকল সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

অনলাইন কেনাকাটায় মজুদ ছাড়া কোন পণ্যের অগ্রিম অর্ডার নেয়া যাবে না

ঋণ শ্রেণীকরণের সময়সীমা ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চায় এফবিসিসিআই