ভিতরে

তিনদিনে বাড়তে পারে পার্বত্য এলাকার প্রধান নদ ও নদীর পানি সমতল

আগামী তিনদিনে দক্ষিণ -পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য এলাকার প্রধান নদ ও নদীর পানি সমতল  বাড়তে পারে। 
 আজ বন্যা পূর্বাভাস ও  সর্তকীকরণ কেন্দ্রের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর ও ভারত আবহাওয়া অধিদফতর গাণিতিক মডেলের তথ্য অনুযায়ী  তিনদিনে  দেশের  উত্তরাঞ্চল, উত্তর পূর্বাঞ্চল, দক্ষিণ -পূর্বাঞ্চল এবং এর কাছাকাছি ভারতের হিমালয় পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, আসাম, মেঘালয় ও ত্রিপুরা প্রদেশের বিভিন্ন স্থানে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। 
এরফলে তিস্তা, ধরলা,দুধকুমার, ব্রহ্মপুত্র, উত্তর -পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার এবং  দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য অববাহিকার প্রধান নদ ও নদীর পানি সমতল সময় বিশেষে বাড়তে পারে। 
ব্রক্ষ্মপুত্র – যমুনা নদ ও নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে,যা ৭২ ঘন্টা পর্যন্ত অব্যাহত  থাকতে পারে। 
গঙ্গা নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। অপরদিকে  পদ্মা নদীর পানি সমতল স্থিতিশীল আছে, যা ২৪ ঘন্টায় বাড়তে পারে। 
উত্তর -পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদ ও নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে আগামী ৭২ ঘন্টা পর্যন্ত তা অব্যাহত  থাকতে পারে। 
আগামী ২৪ ঘন্টায় সুরমা নদী সুনামগঞ্জ ও তিস্তা নদীর ডালিয়া  পয়েন্টে বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। 
অন্যদিকে, পর্যবেক্ষণাধীন ১০১ টি পানি সমতল স্টেশনের মধ্যে বৃদ্ধি পেয়েছে ৭৫ টির, হ্রাস পেয়েছে ২২ টির,অপরিবর্তিত রয়েছে ০৩ টির এবং  ডাটা সংগ্রহ হয়নি ১ টির।
গত ২৪ ঘন্টায় উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত হয়েছে জাফলংয়ে ৮৬ মিলিমিটার, সুনামগঞ্জে ১৭৫ মিলিমাটার, লালাখালে ৯২ মিলিমিটার, লরের গড়ে ২০০ মিলিমিটার, জামালপুরে ৬১ মিলিমিটার, ছাতকে ১২৭ মিলিমিটার, গাইবান্ধায়  ১৮৩ মিলিমিটার ও মহেশখোলায় ১৪১  মিলির্মিটার, দূর্গাপুর ১৬৬ মিলিমিটার এবং  নাকুয়াগাঁও ১২৫ মিলিমিটার।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের নতুন দ্বার উন্মোচন করেছে অনলাইন বিজনেস

ঢাকা শিগগির ২৫ লাখ মার্কিন টিকা ও ২০ লাখ চীনা টিকা পাবে: মোমেন