ভিতরে

দেশে-বিদেশে কর্মরত গৃহ শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আইএলও কনভেনশন ১৮৯ অনুসমর্থনের আহ্বান

দেশে ও বিদেশে নির্যাতনের শিকার গৃহ শ্রমিকদের সুরক্ষা প্রদান এবং তাদের অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় গৃহশ্রমিকদের শোভন কাজ সংক্রান্ত আইএলও কনভেনশন ১৮৯ অনুসমর্থন করার আহ্বান জানানো হয়েছে। এ কনভেনশনের পক্ষে বাংলাদেশ ভোট দিয়েছে, তাই এটি অনুস্বাক্ষর করা জরুরি।
আজ বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ (বিলস)-এর উদ্যোগে ও আন্তর্জাতিক  শ্রম সংস্থা-আইএলও’র সহযোগিতা অনুষ্ঠিত “গৃহ শ্রমিকদের জন্য শোভন কাজ সংক্রান্ত আইএলও কনভেনশন-১৮৯ অনুসমর্থনে সুপারিশমালা প্রণয়ন ও ভবিষ্যৎ করণীয়” শীর্ষক বিলস সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা এই আহ্বান জানান।
বিলস্ চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ হাবিবুর রহমান সিরাজের সভাপতিত্বে ও শাকিল আকতার চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য শামসুন্নাহার ভূঁইয়া এমপি, বিলস্ মহাসচিব ও নির্বাহী পরিচালক নজরুল ইসলাম খান, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, জাতীয় শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর কুতুব আলম মান্নান, শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরামের আহ্বায়ক ড. হামিদা হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী আবুল হোসাইন, শ্রমিক নেত্রী শামিম আরা, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব শেখ মোঃ রেফাত আলী, জাতীয় নেতা কামরূল আহসান, নইমুল আহসান জুয়েল, বিএমইটি উর্ধ্বতন পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মাসুদ রানা, আইএলওর ন্যাশনাল প্রজেক্ট কোঅর্ডিনেটর সৈয়দা মুনিরা সুলতানা, বিলস্ পরিচালক নাজমা ইয়াসমীন প্রমুখ। 
সভাপতির বক্তব্যে বিলস্ চেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান সিরাজ বলেন, আইএলও কনভেনশন-১৮৯ যে সম্মেলনে গৃহিত হয় সেখানে সভাপতিত্ব করে বাংলাদেশ। যেহেতু এ কনভেনশনের পক্ষে বাংলাদেশ ভোট দিয়েছে সেহেতু এটি অনুস্বাক্ষর করা জরুরি।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

সরকার শক্তিশালী পোশাকখাত তৈরীতে কাজ করছে : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

জঙ্গিবাদের স্থান এ দেশে হবে না : ডিজি র‌্যাব