ভিতরে

ফিনল্যান্ডকে বিদায়ের শঙ্কায় ফেললো বেলজিয়াম, দাপুটে জয়ে নকআউট পর্বে ডেনমার্ক

ফিনল্যান্ডকে সোমবার ইউরো চ্যাম্পিয়নশীপের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ২-০ গোলে পরাজিত করেছে বেলজিয়াম। এর মাধ্যমে আগেই নক আউট পর্ব নিশ্চিত করা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দলটি টানা তিন ম্যাচে জয়ী হয়ে গ্রুপ সেরা হয়েই পরের রাউন্ডে গেল। অন্যদিকে তৃতীয় দল হিসেবে ফিনল্যান্ড এখন বিদায়ের শঙ্কায় পড়েছে। 
ফিনিশ গোলরক্ষক লুকাস হ্রাডেকির ৭৪ মিনিটের আত্মঘাতি গোলে এগিয়ে গিয়েছিল বেলজিয়াম। এরপর রোমেলু লুকাকুর ৮১ মিনিটের গোলে রবার্তো মানচিনির দলের গ্রুপ-বি‘র শীর্ষস্থান নিশ্চিত হয়। 
দিনের আরেক ম্যাচে কোপেনহেগেনে রাশিয়াকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করে এই গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ ১৬‘র টিকিট পেয়েছে ডেনমার্ক। 
ডেনমার্ক যদি জয় পায় তবে ফিনল্যান্ডের জন্য নক আউট পর্বে যেতে হলে এক পয়েন্টই যথেষ্ঠ ছিল। কিন্তু ৭০ মিনিট পর্যন্ত বেলজিয়ামকে আটকে রাখলেও সেন্ট পিটার্সবার্গে কাল তাদের হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে। এবারের টুর্নামেন্টে নি:সন্দেহে সবচেয়ে শক্তিশালী একাদশ নিয়েই কাল মাঠে নেমেছিল বেলজিয়াম। সাম্প্রতিক ইনজুরি কাটিয়ে অধিনায়ক এডেন হ্যাজার্ড, কেভিড ডি ব্রুইনা ও এ্যাক্সেল উইটসেল কাল প্রথমবারের মত একসাথে মূল দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন। নিজেদের ছন্দ ফিরে পেতে খুব একটা সময় নেয়নি এই ট্রায়ো। ডি ব্রুইনার পাস থেকে লুকাকুর শট অল্পের জন্য বাইরে দিয়ে চলে যায়। প্রথমার্ধের প্রায় বেশীরভাগ সময়ই বেশ ধীর গতিতে খেলা হয়েছে। কিন্তু বেলজিয়াম যখনই বলের পজিশন পেয়েছে তখনই তারা বিপদজনক হয়ে উঠেছে। দুটি ভাল প্রচেষ্টা থেকে উইটসেল ও হ্যাজার্ড গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। 
বিরতির ঠিক পরপরই রেড ডেভিলসরা কাউন্টার এ্যাটাক থেকে হ্যাজার্ডের নেতৃত্বে একের পর এক আক্রমন চালাতে থাকে। ফিনল্যান্ড ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল ও‘শগনেসির বিপক্ষে হ্যাজার্ড পেনাল্টি আদায়ের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। হ্যাজার্ডের শক্তিশালী একটি শট হ্রাডেকি দারুন দক্ষতায় রুখে দেন। কিন্তু ৬৫ মিনিটে লুকাকু গোল আর আটকাতে পারেননি ফিনিশ গোলরক্ষক। যদিও ভিএআর অফসাইডের কারনে গোলটি বাতিল করে দেয়। কর্ণার থেকে থমাস ভারমালেনের হেড ক্রসবারে লাগলেও হ্রাডেকির লেগে তা লাইন ক্রস করলে আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ে ফিনল্যান্ড। ৮১ মিনিটে ডি ব্রুইনার দারুন এক পাস থেকে লুকাকু ডান পায়ের জোড়ালো শটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। এটি লুকাকুর ৬৩তম আন্তর্জাতিক গোল। 
গ্রুপের আরেক ম্যাচে রাশিয়াকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করে ফিনল্যান্ডকে টপকে শেষ ১৬ নিশ্চিত করেছে ডেনমার্ক। কোপেনহেগেনের পারকেন স্টেডিয়ামে ডেনমার্কের হয়ে গোলগুলো করেছেন মিকেল ডামসগার্ড, ইউসুফ পোলসেন, আন্দ্রেস ক্রিস্টেনসেন ও জোয়াকিম মাহলে। এর মাধ্যমে তিন ম্যাচে টুর্নামেন্টে প্রথম জয় তুলে নিল ড্যানিশরা। 
শনিবার এ্যামাস্টারডামে শেষ ১৬’র লড়াইয়ে ডেনমার্ক ওয়েলসের মোকাবেলা করবে। 
প্রথম দুই ম্যাচে কোন পয়েন্ট না পাওয়া ডেনমার্ক অনেকটা খাদের কিনারায় থেকে ম্যাচটি শুরু করেছিল। কিন্তু রাশিয়ার বিপক্ষে দুই কিংবা তারো বেশী গোলে জিততে পারলে ফিনল্যান্ডকে পিছনে ফেলতে পারবে, এমন একটি সমীকরণ ড্যানিশদের মাথায় ছিলফিনল্যান্ড ও বেলজিয়ামের বিপক্ষে যে আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে খেলা শুরু করেছিল সেই একই মানসিকতা কালও দেখা গেছে ডেনমার্কের মধ্যে। যদিও ম্যাচের প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল রাশিয়া। কিন্তু আলেক্সান্দার গোলোভিনের শট সহজেই আটকে দেন কাসপার সিমিচেল। ৩৮ মিনিটে ডামসগার্ড প্রমান করেছেন কেন তাকে এরিকসেনের স্থানে প্লেমেকার হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। আগামী মাসে ২১ বছরে পা রাখতে যাওয়া সাম্পদোরিয়ার এই উইঙ্গার দারুন এক গোলে দলকে এগিয়ে দেন। 
বিরতির পরেও ডেনমার্কের আধিপত্য বজায় ছিল। ৫৮ মিনিটে ফাঁকা পোস্টে বল পাঠিয়ে ব্যবধান দ্বিগুন করেন পোলসেন। ৭০ মিনিটে স্পট কিক থেকে আরটেম ডিজুবা রাশিয়ার হয়ে এক গোল পরিশোধ করলে অস্তস্তি নেমে আসে ড্যানিশ শিবিরে। ৭৯ মিনিটে ক্রিস্টিনসেন দুর পাল্লার দুর্দান্ত শটে ব্যবধান ৩-১‘এ নিয়ে যান। তিন মিনিট পর মাহলে ডেনমার্কের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

কলম্বিয়ায় করোনায় মৃতের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে

উইজনালডামের জোড়া গোলে শীর্ষে থেকেই গ্রুপ পর্ব শেষ করলো নেদারল্যান্ড