ভিতরে

আর্জেন্টিনা-উরুগুয়ে ম্যাচে পুনর্মিলন ঘটতে যাচ্ছে মেসি-সুয়ারেজের

কোপা আমেরিকায় শনিবার পরস্পরের মুখোমুখি হবে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা ও লুইস সুয়ারেজের উরুগুয়ে। নভেম্বরের পর থেকে দুই দলের কোনটিই এখনো পর্যন্ত জয়ের মুখ দেখেনি। ব্রাসিলিয়ার মানে গারিঞ্চা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচের জন্য এখনো পর্যন্ত একাদশও চুড়ান্ত করেনি দুই দলের কেউই। তবে এই ম্যাচের বিজয়ী দল আসন পেয়ে যাবে গ্রুপের শীর্ষে। এতে করে নক আউট পর্বের সুচনালগ্নে ‘বি’ গ্রুপ ভুক্ত বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলকে পাশ কাটানো সম্ভব হবে তাদের।
গত সোমবার চিলির বিপক্ষে নিজেদের সুচনা ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করায় দারুন সমালোচনার মুখে পড়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি। এর কয়েকদিন আগে বিশ^কাপ বাছাইপর্বে কলম্বিয়ার বিপক্ষেও ২-২ গোলে ড্র করেছিল আর্জেন্টিনা।
এই মুহুর্তে সমান্তরাল ভাবে এগিয়ে চলেছে ইউরো ও কোপা আমেরিকা। ইউরোপে যেমন বিশ^সেরা ফুটবল তারাকাদের মধ্যে পুনর্মিলণ ঘটছে। তেমনি কোপা আমেরিকায়ও সম্মিলন ঘটছে ল্যাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ^কাপানো ফুটবল তারকাদের মধ্যে। এই ধারায় শনিবার পুর্নমিলন ঘটতে যাচ্ছে দুই দেশের দুই দিকপাল লুইস সুয়ারেজ ও লিওনেল মেসির মধ্যে। ক্লাব ফুটবলে একসময় সতীর্থ এই দুই তারকা এখন লড়বে পরস্পরের প্রতিপক্ষ হিসেবে। এর বাইরেও দুই জনের মধ্যে রয়েছে দারুন বন্ধুত্ব।
শনিবার আন্তর্জাতিক ম্যাচের ময়দানি লড়াইয়ে একই মাঠে দেখা যাবে বর্তমান সময়ের এই দুই সক্রিয় ল্যাথিন মহাতারকাকে। সর্বশেষ ২০১৯ সালে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল এই দুই ফুটবল তারকা। ম্যাচটি ড্র হয়েছিল ২-২ গোলে।
এই মুহুর্তে ক্লাব ফুটবলেও প্রতিপক্ষ মেসি ও সুয়ারেজ। কারণ বার্সেলোনা ছেড়ে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন উরুগুইয়ান তারকা। স্প্যানিশ ঘরোয়া ফুটবলে দুই দলের সর্বশেষ প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবশ্য জয় পায়নি কেউ। উত্তেজনায় ঠাসা ম্যাচটি ড্র হয়েছে গোলশুন্য। যদিও মেসির বার্সেলোনাকে পেছনে রেখে এবারের লা লিগায় শিরোপা জয় করেছে সুয়ারেজের অ্যাটলেটিকো।
কোচ লিওনেল স্কালোনির অধীনে এবার অবশ্য কোপা আমেরিকার শিরোপা জয়ের স্বপ্ন দেখছেন মেসি। যদিও সর্বশেষ তিন ম্যাচেই জয়ের কারণে মেসির সেই স্বপ্ন কিছুটা বোঝা হয়েই দাঁড়াতে পারে।
এদিকে উরুগুয়ের বিপক্ষে আসন্ন ম্যাচে তিনজন ডিফেন্ডার নিবেন নাকি চারজন, সেটি এখনো নিশ্চিত করতে পারেননি আর্জেন্টাইন কোচ। মধ্যমাঠে লুকাস মার্টিনেজের জায়গায় ক্রিস্টিয়ান রোমেরোকেও ফিরিয়ে আনতে পারেন স্কালোনি।
তিনি যদি তিন ডিফেন্ডারকে মাঠে নামান, তাহলে একাদশ থেকে ছিটকে পড়তে পারেন লেফট ব্যাক নিকোলাস টাগলিয়াফিকো।
সম্মুখ ভাগে মেসিকে সঙ্গ দেবার জন্য কাকে রাখবেন সেটিও এখনো পর্যন্ত ঠিক করেননি আর্জেন্টাইন কোচ। লটারো মার্টিনেজের গোলমুখে দুর্বলতা থাকায় ডাক পেতে পারেন বার্সেলোনায় নতুন চুক্তিবদ্ধ হওয়া সার্জিও এগুয়েরো।
এদিকে উরুগুয়ের আক্রমনভাগের নেতৃত্ব দেবেন লুইস সুয়ারেজ ও এডিনসন কাভানি। তবে কোচ অস্কার তাবারেজ মধ্যমাঠে কাকে খেলাবেন সেটি এখনো ঠিক করেননি। সাধারণত জিওভান্নি গঞ্জালেজ পেনারোলে ডিফেন্ডার হিসেবে খেলে থাকেন। গঞ্জালেজকে যদি ওই দায়িত্ব দেয়া হয় তাহলে বুঝতে হবে লিওনেল মেসিকে ঠেকানোর জন্য বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করেছেন কোচ তাবারেজ।
সুয়ারেজ বলেন,‘ সম্মুখভাগে তারা(আর্জেন্টিনা) খুবই শক্তিশালী। তবে আমিও চেস্টা করব তাদের দুর্বল মুহুর্তের সুযোগ কাজে লাগাতে। যেটি সব দলেরই থেকে থাকে।’
সুচি: ১৯ জুন ২০২১
ম্যাচ ৭: চিলি বনাম বলিভিয়া (কুইয়াবা, রাত ৩টা)
ম্যাচ ৮: আর্জেন্টিনা বনাম উরুগুয়ে (ব্রাসিলিয়া, ভোর ৬টা)

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

রিয়াল ছাড়ছেন রামোস

ফাইনালের আগে নিউজিল্যান্ডকে অন্যায় সুবিধা দিয়েছে আইসিসি : টেন্ডুলকার