ভিতরে

স্থানীয় সরকারের সকল প্রতিষ্ঠানের বিদ্যমান আইন সময়োপযোগী করতে কাজ করছে সরকার : এলজিআরডি মন্ত্রী

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের সকল প্রতিষ্ঠানের বিদ্যমান আইন সময়োপযোগী করতে সংশোধনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, পাশ্চাত্যের উন্নত দেশগুলোসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সময়ের প্রেক্ষিতে ও জনকল্যাণ নিশ্চিত করতে নতুন আইন প্রনয়ণের পাশাপাশি আগের আইনগুলোরও পরিবর্তন করা হয়।
মন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের দেশের বর্তমান আর্থ-সামাজিক সার্বিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকারের আইনগুলোকে সময়োপযোগী ও শক্তিশালী করতে আইনগুলো পরিবর্তন করা জরুরী প্রয়োজন।
মো. তাজুল ইসলাম আজ রাজধানীর সরকারী বাসভবন থেকে ভার্চুয়ালী চলমান করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ এবং উন্নয়ন কার্যক্রম নিয়ে দেশের সকল জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের সঙ্গে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন।
মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা, জেলা পরিষদ, সিটি কর্পোরেশন ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও অধিদপ্তর সাধারণ মানুষকে সেবাদান করে থাকে। এ সকল প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দেশের আর্থ-সামাজিকসহ অনেক কর্মকান্ড বিশেষ করে খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের জীবন-জীবীকা জড়িত।
তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের এই মহামারীকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে চলমান উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখতে হবে। তা না হলে বিশাল সংখ্যক শ্রমজীবী মানুষ আয় বঞ্চিত হলে গ্রামীণ আর্থ-সামাজিক অবস্থা কঠিন বাস্তবতার সম্মুখীন হবে।
এজন্য প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অনলাইনে সভা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উন্নয়ন কার্যক্রম চালু রাখতে সকলকে উৎসাহ-উদ্দীপনা দেয়ার পাশাপাশি নিজ নিজ দায়িত্ব সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে পালন করতে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের নানা নির্দেশনা দেন তিনি।
‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই দর্শন বাস্তবায়নের জন্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের প্রতি আহবান জানিয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় শহরের সকল সুযোগ-সুবিধা গ্রামে পৌঁছে দিতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করছে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচীর ফলে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা এবং প্রতিবন্ধীভাতা প্রদানসহ অসহায় মানুষের জীবন-জীবীকায় ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে।
তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়তে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে ক্ষমতায়ন এবং জবাবদিহীতা নিশ্চিত করতে হবে।
সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকতা এবং জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহীরা অংশ নেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন সাড়ে ১৯ লক্ষাধিক লোক

বেনজেমার জোড়া গোলে রিয়াল মাদ্রিদের জয়