ভিতরে

ব্রাইটনের সাথে ড্র করেও শীর্ষ চারে উঠে এলো চেলসি

মঙ্গলবার ব্রাইটনের সাথে গোলশুন্য ড্র করেও প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষ চারে উঠে এসেছে চেলসি। এই ড্রয়ে ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে ওয়েস্ট হ্যামকে গোল ব্যবধানে পিছনে ফেলে শীর্ষ চার নিশ্চিত করে ব্লুজরা।
ম্যাচটি শুরু হবার ঠিক আগে গুঞ্জন ছিল চেলসির মালিক রোমান আব্রামোভিচ বিতর্কিত ইউরোপীয়ান সুপার লিগে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যদিও ম্যাচটি শেষ হবার পরে এ সম্পর্কে ক্লাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোন সিদ্ধান্ত জানা যায়নি। তবে পরবর্তীতে চেলসিসহ প্রিমিয়ার লিগের আরো পাঁচটি ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল, আর্সেনাল ও টটেনহ্যাম আনুষ্ঠানিক ভাবে সুপার লিগ থেকে নাম প্রত্যাহারের ঘোষনা দেয়।
স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে কাল একেবারেই সাদামাটা পারফরমেন্স দেখিয়েছে থমাস টাচেলের দল। ম্যাচ শেষে টাচেল বলেছেন, ‘ম্যাচের শুরুতে আমাদের সকলের মাথায় ম্যাচের থেকে সুপার লিগ নিয়ে বেশী চিন্তা ছিল। আমি মনে এই বিষয়টি ম্যাচের ফলাফলকে অবশ্যই প্রভাবিত করেছে। ব্যক্তিগত ভাবে আমি নিজেও এতে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি। যে কারনে খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে বলে আমি বিশ্বাস করি । পুরো পরিস্থিতি এখনো স্পষ্ট নয়। অন্য সকলের মতই আমিও জানতে পেরেছি চেলসি খেলছে না। তবে সব কিছুর জন্যই আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে। আজ আমরা ম্যাচ জয়ের জন্য সম্ভাব্য সব চেষ্টাই করেছি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারিনি। আমাদের মানসিক ভাবে পরিশ্রান্ত মনে হয়েছে।’
আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টিকে থাকার লড়াইয়ে শনিবার ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাঠে নামবে চেলসি। কাল ম্যাচ শুরুর ঠিক আগে মনে হয়েছিল চেলসি যেন সুপার লিগে আমন্ত্রন পেয়েই সন্তুষ্ট, ইউরোপে খেলার যোগ্যতা অর্জন নিয়ে তারা মোটেও চিন্তিত নয়। কিন্তু ম্যাচের মধ্যেই বিভিন্ন ভাবে চারিদিক থেকে সুপার লিগ না খেলার গুঞ্জন আসতে থাকে। তখনই মূলত ম্যাচের চেহারা পাল্টে যায়। আব্রামোভিচ ও ক্লাব চেয়ারম্যান ব্রুস বাক সবসময়ই দাবী জানিয়ে আসছিলেন সুপার লিগে অংশ নিলে চেলসির ভাবমূর্তি দারুনভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবে। একইসাথে সমর্থকদের আস্থাও তারা অনেকাংশেই হারিয়ে ফেলবে।
করোনাভাইরাস মহামারীর কারনে স্ট্যামফোর্ড ব্রীজ এখনো দর্শকশুন্য অবস্থায রয়েছে। তারপরেও প্রায় হাজারখানেক দর্শক কাল স্টেডিয়ামের বাইরে সুপার লিগের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে। কিন্তু সুপার লিগ থেকে নাম প্রত্যাহারের ঘোষনা আসার সাথে সাথেই তারাই আবার প্রিয় দলকে পূর্ণ সমর্থণ দিয়েছে।
পুরো ম্যাচ জুড়েই টাচেলের শঙ্কা ছিল তার দল হয়তোবা সুপার লিগের নাটকীয়তায় তাদের বর্তমান দায়িত্বই ভুলে যায়। বিশেষ করে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনাল ম্যাচ এখনো বাকি। চেলসির সামনে দারুন এক সুযোগ নিজেদের এগিয়ে নিয়ে যাবার। কিন্তু তার আগে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ চারের জায়গা ধরে রাখাও গুরুত্বপূর্ণ।
প্রানহীন ম্যাচে গতকাল ম্যাচের ৮০ মিনিটে ব্রাইটন এগিয়ে যাবার দারুন সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু ডানি ওয়েলবেকের কার্লিং শট পোস্টের পাশ দিয়ে বাইরে চলে যায়। স্টপেজ টাইমে দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারনে ইংলিশ ডিফেন্ডার বেন হোয়াইট মাঠ ত্যাগ করলে শেষ পর্যন্ত ১০ জন নিয়ে খেলতে হয়েছে ব্রাইটনকে। কিন্তু তারপর চেলসির হাতে আর ম্যাচ জয়ের কোন সুযোগ ছিল না। এই ড্রয়ে রেলিগেশন জোন থেকে সাত পয়েন্ট উপরে উঠে ১৬তম স্থানে অবস্থান করছে ব্রাইটন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

তামিমের হাফ-সেঞ্চুরিতে প্রথম সেশন বাংলাদেশের

জুনের আগে অলিম্পিকে দর্শক উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করা যাচ্ছে না