ভিতরে

লিগ ওয়ান: সমান তালে এগিয়ে যাচ্ছে লিলি, পিএসজি

ফরাসি লিগ ওয়ানের শিরোপা লড়াই দারুন জমে উঠেছে। শীর্ষে থাকা দুই দল লিলি ও পিএসজি একে অপরের সাথে সমান তালে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। কাল দু’দলই নিজ নিজ ম্যাচে জয়ী হয়ে নিজেদের জয়ের ধারা ধরে রেখেছে। এ্যাওয়ে ম্যাচে স্টাসবার্গকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছেন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পিএসজি। আরেক ম্যাচে লিলি ২-০ গোলে মেটজকে পরাজিত করেছে।
এই জয়ে মরিসিও পোচেত্তিনোর পিএসজি টেবিলের শীর্ষে থাকা লিলির থেকে তিন পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। প্রথমার্ধে কিলিয়ান এমবাপ্পে, পাবলো সারাবিয়া ও মোয়েস কিনের গোলে পিএসজির ব্যবধানটা সুদৃঢ় করে। ফ্রি-কিক থেকে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন লিনড্রো পারেডেস। ৬৩ মিনিটে বদলী খেলোয়াড় ডিও মোয়েস সাহির এক গোলে ব্যবধানটাই শুধু কমিয়েছে স্টার্সবার্গ। গত সপ্তাহে ঘরের মাঠে লিলির কাছে পরাজিত হয়ে শিরোপা লড়াইয়ে কিছুটা হলেও পিছিয়ে পড়েছিল পিএসজি।
ম্যাচ শেষে চ্যানেল প্লাসকে টটেনহ্যামের সাবেক বস পোচেত্তিনো বলেছেন, ‘এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি জয়। কারন তিন পয়েন্ট শিরোপা দৌঁড়ে টিকে থাকার জন্য জরুরী। এখনই অবশ্যই সবকিছু নিয়ে চাপে থাকাটা ঠিক হবেনা। আমরা আজ সবদিক থেকে সত্যিকারের লড়াই করেছি। আমাদের আরো বেশী ধারাবাহিক হতে হবে। তিনটি বড় টুর্নামেন্টে আমরা সমান তালে লড়ে যাচ্ছি।’
বুধবার বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের এ্যাওয়ে ম্যাচে ৩-২ গোলে জয়ে এমবাপ্পে দুর্দান্ত দুই গোল করেছেন। আগামী মঙ্গলবার প্যারিসের দ্বিতীয় লেগের আগে নি:সন্দেহে স্বাগতিকরা কিছুটা হলেও এগিয়ে থাকবে। জার্মানীর ম্যাচটি থেকে সাতটি পরিবর্তন করে কাল মুল দল সাজিয়েছিলেন পোচেত্তিনো। লিলির বিপক্ষে লাল কার্ড পাওয়া ঘরোয়া দুই ম্যাচে নিষিদ্ধ রয়েছেন নেইমার। ইনজুরির কারনে অধিনায়ক মারকুইনহোসও খেলতে পারেননি। কিন্তু এমবাপ্পে পুরো ৮৮ মিনিট মাঠে ছিলেন।
স্টাসবার্গের হয়ে প্রথম শটটি পোস্টে লাগিয়েছিলেন আদ্রিয়েন থমাসন। এই সুযোগে ১৬ মিনিটে গোলের খাতা খুলেন এমবাপ্পে। পারেডেসের কাছ থেকে বল নিয়ে বামদিক দিয়ে বক্সে ঢুকে ঠান্ডা মাথায় গোলরক্ষক মাটজ সেলসকে পরাস্ত করেন। এবারের মৌসুমে লিগ ওয়ানে এটি এমবাপ্পের প্রথম গোল এবং সব মিলিয়ে ৩৯ ম্যাচে ৩৩তম গোল। মূল দলে সুযোগ পেয়েছে তা কাজে লাগিয়েছেন সারাবিয়া। ২৭ মিনিটে ডানিলো পেরেইরার পাস থেকে কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন এই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। ৪৫ মিনিটে এমবাপ্পের এসিস্টে ইতালিয়ান স্ট্রাইকার কিন ব্যবধান ৩-০’তে নিয়ে যান। এভারটন থেকে ধারে খেলতে আসার পর এটি ছিল তার ১৮তম গোল। মালিয়ান তরুন সাহি মাঠে নামার এক মিনিটের মধ্যে স্টাসবার্গের হয়ে এক গোল পরিশোধ করেন। কেইলর নাভাসের পরিবর্তে বিরতির পর গোলবারে খেলতে নামা সার্জিও রিকো সাহিকে রুখতে পারেননি। ৭৯ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার পারেডেস পিএসজির বড় জয়ে ভূমিকা রাখেন।
টার্কিশ জুটি বুরাক ইয়েলমাজ ও জেকি সেলিকের দ্বিতীয়ার্ধের দুই গোলে মেটজকে পরাজিত করেছেন লিলি। এর আগে ১৭ মিনিটে মেটজের এ্যারন লেয়া ইসেকার পেনাল্টি রুখে দিয়ে লিলিকে রক্ষা করেছিলেন গোলরক্ষক মাইক মেইগনান।
কনিবার দিনের আরেক ম্যাচে মন্টিপিলিয়ালের সাথে ৩-৩ গোলে ড্র করে পঞ্চম স্থানে উঠে আসার সুযোগ হাতছাড়া করেছে মার্সেই।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

প্রিমিয়ার লিগ: অবশেষে ঘরের মাঠে জয় পেল লিভারপুল, লিডসের কাছে সিটির হতাশাজনক পরাজয়

সাকিবকে কলকাতার সম্পদ বলছেন মরগান