ভিতরে

ডিজিটাল অপরাধ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রযুক্তি সচেতনতা অপরিহার্য : টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটাল অপরাধ ব্যক্তি, পরিবার ও সমাজের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ডিজিটাল প্রযুক্তি শিক্ষা সচেতনতা একান্ত অপরিহার্য। এ ক্ষেত্রে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে সম্পৃক্ত করার পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর ডিজিটাল অপরাধ বিষয়ে অধিকতর দক্ষতা অর্জন প্রয়োজন।
বিটিআরসি এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস)-এর যৌথ উদ্যোগে বুধবার রাতে ‘নিরাপদ ইন্টারনেট’ শীর্ষক ভার্চুয়াল সেমিনাওে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো: আফজাল হোসেন, বিটিআরসি’র মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো: নাসিম, টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহসিনুল আলম, টেলিটক-এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক সাহাব উদ্দিন, দ্য এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশের সভাপতি মোজাম্মেল বাবু, বিসিএস-এর সভাপতি সাইদ মুনির, আইএসপিএবি’র সভাপতি এম এ হাকিমসহ বাংলা লিংক, রবি ও ফাইভার এট হোম এর প্রতিনিধিগণ বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন বিসিএস-এর মহাসচিব মনিরুল ইসলাম।
মোস্তাফা জব্বার আরো বলেন, ফেসবুক ও ইউটিউবসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম তাদের দেশের কম্যুনিটি স্ট্যান্ডার্ড রক্ষা করে চলে। আমাদের জীবন ধারার সাথে তাদের জীবন ধারার মিল নেই। আমাদের সন্তানরা অনেক দক্ষ। তারা ইচ্ছা করলে প্রযুক্তির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সক্ষম। চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমাদের প্রযুক্তিখাতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে এক সাথে কাজ করতে হবে।
তিনি বলেন, এমএফএস বা ব্যাংকিং খাতে অসংখ্য নতুন অপরাধের সূচনা হয়েছে। সেগুলো রাষ্ট্রের জন্য চ্যালেঞ্জ। টেলিকমখাত সংশ্লিষ্টরা আইন শৃংখলা রক্ষাকারীবাহিনী ডিজিটাল প্রতারণাসহ সাইবার অপরাধ অসাধারণ দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করছে।
মন্ত্রী ই-ক্যাব দিবস উপলক্ষ্যে বুধবার রাতে ঢাকায় অপর এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেছেন, আগামী দিনগুলোতে ডিজিটাল কমার্স পুরো ব্যবসা খাতকে নিয়ন্ত্রণ করবে। দেশব্যাপী উচ্চগতির ইন্টারনেট সম্প্রসারণ এবং লজিস্টিক সাপোর্ট হিসেবে ডাক অধিদপ্তরের বিস্তৃত নেটওয়ার্ক ডিজিটাল বাণিজ্য বিকাশের জন্য মাইলফলক হিসেবে কাজকরছে।
তিনি বলেন, ডিজিটাল কমার্স এখন শুধু পণ্য বিক্রেতাদেরই নয়, ক্রেতাদেরও প্ল্যাটফর্ম। এ খাতের উন্নয়নে সরকার সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা করছে, যা অব্যাহত থাকবে।
ই-ক্যাব সভাপতি শমী কায়সারের সভাপতিত্বে সংস্থাটির সেক্রেটারী জেনারেল মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

বিটিসিএল’র অ্যাপ আলাপের সাইন-আপ চার দিনে চার লাখ ছাড়িয়ে গেছে

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অংগসংগঠনের মতবিনিময় সভা ।