ভিতরে

এমভি মেঘনা প্রিন্সেস’ ও এমভি মেঘনা এ্যাডভেঞ্চার’ উদ্বোধন করলেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

চট্টগ্রাম বন্দরের বহিঃনোঙ্গরে দু’টি আল্ট্রাম্যাক্স বাল্ক ক্যারিয়ার ‘এমভি মেঘনা প্রিন্সেস’ ও এমভি মেঘনা এ্যাডভেঞ্চার’ উদ্বোধন করা হয়েছে।
আজ বুধবার নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি সুবিশাল দু’টি সমুদ্রগামি জাহাজের উদ্বোধন করেন।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোস্তফা কামাল, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান, নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর আবু জাফর মো. জালাল উদ্দিন এরং একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু উপস্থিত ছিলেন।
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের জন্য জাতিসংঘের চূড়ান্ত স্বীকৃতি লাভ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় এগিয়ে চলছে। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তারা এগিয়ে আসায় এটা সহজ হয়েছে। মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ এক্ষেত্রে অগ্রনি ভূমিকা পালন করছে।
তিনি বলেন, আমরা মুজিববর্ষে আছি এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দ্বারপ্রান্তে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলার মানুষকে সাহসী করে তুলেছেন। বিশ্বে বাংলাদেশকে উন্মুক্ত করে দিয়েছেন। শুধু সমুদ্র সীমা নয় সমগ্র পৃথিবীকে হাতের কাছে আনার চেষ্টা করছি। সে পথযাত্রা আরো দীর্ঘ হবে। এজন্য মেরিটাইম সেক্টরকে সহযোগিতা করতে শেখ হাসিনা দৃঢ়প্রতিঞ্জ।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের পতাকাবাহি জাহাজ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আমাদের মর্যাদা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। মেঘনা গ্রুপের এ জাহাজগুলোও আমাদের জাতীয় পতাকা উড্ডীন করে বহিঃর্বিশ্বে আমাদের সক্ষমতার প্রকাশ ঘটাবে। এসব জাহাজে দেশিয় নাবিকদের কর্মসংস্থানের মাধ্যমে মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয়ও হবে।
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, সুনীল সমুদ্র ব্যবসা বান্ধব। সুনীল সমুদ্র সম্পদ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে সহায়ক শক্তি হিসাবে কাজ করবে। ২০৪১ সালে উন্ন দেশে পরিণত হতে সমুদ্র সম্পদ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

একটি মন্তব্য

বাংলাদেশ সফররত ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ‘কুলিশ’ ও ‘সুমেধার’ মোংলা বন্দর ত্যাগ

কিডনি রোগের প্রতিরোধ ও চিকিৎসার বিষয়ে সরকার যথাযথ গুরুত্ব দিচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী