ভিতরে

বুন্দেসলিগা: লিওয়ানোদোস্কির হ্যাটট্রিকে উত্তেজনাকর ম্যাচে বরুসিয়াকে হারিয়েছে বায়ার্ন

রবার্ট লিওয়ানোদোস্কির হ্যাটট্রিকে বুন্দেসলিগায় পিছিয়ে পড়েও বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ৪-২ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ।
আলিয়াঁজ এরিনাতে দর্শকবিহীন স্টেডিয়ামে ম্যাচের ৯ মিনিটে আর্লিং ব্রত হালান্ডের দুই গোলে সফরকারী ডর্টমুন্ড ২-০ গোলে এগিয়ে যায়। এরপর লিওয়ানোদোস্কির দুই গোলে বিরতির আগেই দারুণভাবে ম্যাচে ফিরে আসে বায়ার্ন। পোলিশ এই তারকার দ্বিতীয় গোলটি ছিল পেনাল্টি স্পট থেকে। লিও গোয়েৎজার গোলে ম্যাচ শেষের দুই মিনিট আগে প্রথমবারের মত এগিয়ে যায় বায়ার্ন। এরপর ৯০ মিনিটে লিওয়াদোস্কি নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন।
ম্যাচ মেষে বায়ার্নের অভিজ্ঞ জার্মান তারকা থমাস মুলার বলেছেন, ‘এই ম্যাচে বায়ার্ন তাদের যোগ্যতার প্রমান দিয়েছে, এটাই সত্যিকারের বায়ার্নের চেহারা।’
এই জয়ে কিছুক্ষন আগে শীর্ষে থাকা আরবি লিপজিগকে দুই পয়েন্টের ব্যবধানে পিছনে ফেলে টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে বেভারিয়ান্সরা। বায়ার্ন কোচ হান্সি ফ্লিক বলেছেন, ‘আমরা ২-০ গোলে পিছিয়ে থেকে নিজেদের আত্মবিশ^াস বাড়ানোর চেষ্টা করেছি। এই জয়টা আমাদের প্রাপ্য ছিল, কারন শেষ ৬০ মিনিট আমরাই আধিপত্য দেখিয়েছি।’
এই দুই ক্লাবের শেষ পাঁচটি মোকাবেলায় বায়ার্নই জয়ী হয়েছে।
ডর্টমুন্ড মিডফিল্ডার এমরে কান বলেছেন, ‘আমরা ততটা ভাল খেলতে পারিনি। শুরুটা ভাল হয়েছিল, কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটা ধরে রাখতে পারিনি। আমাদের আরো বেশী সাহসী হওয়া উচিত ছিল।’
এই ম্যাচটি মূলত বুন্দেসলিগায় এই মুহূর্তে সেরা স্ট্রাইকারদের লড়াইয়ে পরিণত হয়েছিল। ম্যাচের দুই মিনিটের মধ্যেই নরওয়েজিয়ান তরুন হালান্ড গোল করে ডর্টমুন্ডকে এগিয় দেন। ৯ মিনিটে থ্রোগান হ্যাজাডের সহায়তায় হালান্ড আবারো গোল করলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। ২৫ মিনিটে থমাস মুনিয়ার গোলের সুযোগ নষ্ট না করলে তখনই ডর্টমুন্ড ৩-০ গোলে এগিয়ে যেতে পারতো। মিনিটখানেক পরেই লিরয় সানের সহায়তায় লিওয়ানোদোস্কি এক গোল পরিশোধ করেন। কিংসলে কোম্যানকে ডি বক্সের ভিতর ফাউলের অপরাধে মাহমুদ দাহুদের বিপক্ষে পেনাল্টি আদায় করে নেয় বায়ার্ন। স্পট কিক থেকে বিরতির আগে বায়ার্নকে সমতায় ফেরান পোলিশ তারকা লিওয়ানোদোস্কি।
উত্তেজনায় ঠাসা প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কিছু ইনজুরির ঘটনায় উভয় দলই দু:শ্চিন্তায় পড়ে। ডর্টমুন্ড কোচ এডিন টারজিক স্বীকার করেছেন, ‘আমরা শুরুটা ভাল করলেও শেষটা বাজেভাবে করেছি।’
৬০ মিনিটে গোঁড়ালির পিছনে কেটে যাওয়ায় মাঠ ত্যাগে বাধ্য হন হালান্ড। ৭০ মিনিটে হাঁটুর ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছাড়েন বায়ার্নের অভিজ্ঞ জার্মান ডিফেন্ডার জেরম বোয়াটেং। ম্যাচ শেষের দুই মিনিট আগে গোয়েৎজার গোলের পর লিওয়ানোদোস্কির হ্যাটট্রিকে শেষ পর্যন্ত স্বস্তির জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। এনিয়ে এবারের মৌসুমে ৩১ গোল করলেন লিও। এর মাধ্যমে ১৯৭১/৭২ মৌসুমে গার্ড মুলারের সর্বকালের সর্বোচ্চ ৪০ গোলের রেকর্ড ভাঙ্গার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে এই পোলিশ তারকা।
এর আগে ফ্রেইবার্গতে ৩-০ গোলে হারিয়ে অল্প সময়ের জন্য বুন্দেসলিগা টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছিল আরবি লিপজিগ। আগামী বুধবার বুদাপেস্টে লিভারপুলের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬’র ম্যাচের আগে এই জয় লিপজিগকে দারুনভাবে উজ্জীবিত করবে।
টেবিলের মাঝামাঝিতে থাকা হফেনহেইমের কাছে ২-১ গোলের হতাশাজনক পরাজয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা উল্ফসবার্গ বায়ার্নের থেকে ১০ পয়েন্ট পিছিয়ে গেছে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট
উত্তর দিন

মন্তব্য করুন

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে কলম্বিয়া-ব্রাজিল ম্যাচ নিয়ে শঙ্কা

সিরি-এ: মোরাতার দুই গোলে জুভেন্টাসের জয়