ভিতরে

এককভাবে ইউরো ২০২০ আয়োজনের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিল বৃটিশ সরকার

পুন:নির্ধারিত উয়েফা ২০২০ এককভাবে শুধুমাত্র ইংল্যান্ডে আয়োজনের সম্ভবনা উড়িয়ে দিয়েছে বৃটিশ সরকার।
করোনাভাইরাসের কারনে গত বছর এই আয়োজন এক বছরের জন্য স্থগিত করা দেয়া হয়। নতুন সূচী অনুযায়ী আগামী ১১ জুন থেকে এই টুর্নামেন্ট পূর্ব নির্ধারিত ইউরোপের ১২টি শহরেই শুরু হবার কথা রয়েছে। এই প্রথমবারের মত কোন একক দেশে নয় বরং ইউরোপের ১২টি শহরে এই টুর্নামেন্ট আয়োজিত হতে যাচ্ছে। সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ম্যাচ লন্ডনের ওয়েম্বলী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু কোভিড-১৯’র কারনে বিভিন্ন দেশে ভ্রমন নিষেধাজ্ঞা থাকায় তা টুর্নামেন্ট আয়োজনে বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
ভাইরাসে ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় বৃটেনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান একটু বেশী। কিন্তু ইতোমধ্যেই অন্তত এক ডোজ করে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ১৮ মিলিয়ন বৃটিশ নাগরিক। জুলাইয়ে প্রায় সব নাগরিককে ভ্যাক্সিন দেবার কাজটি সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ভ্যাকসিনেশনের দিক থেকে সফলতা বিবেচনায় পুরো ইউরো টুর্ণামেন্ট এককভাবে ইংল্যান্ডে আয়োজনের বিষয়টি বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচিত হয়ে আসছে।
কিন্তু বৃটিশ সরকার আপাতত এই সম্ভাবনাকে নাকচ করে দিয়েছেন। বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এ সম্পর্কে বলেছেন, ‘এটা শুধুই একটি সম্ভাবনা। টুর্নামেন্ট কিভাবে আয়োজিত হবে এটা সম্পূর্ণই উয়েফার সিদ্ধান্ত। গতকালই তারা জানিয়েছে পূর্ব নিধারিত সূচী অনুযায়ী ১২টি শহরেই তারা এবারের আসর আয়োজন করতে চায়। আমরা ওয়েম্বলীর ম্যাচগুলোসহ যে সাতটি ম্যাচ যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত হবে শুধুমাত্র সেগুলো নিয়েই চিন্তা করতে চাই।’
জানুয়ারিতে উয়েফার পক্ষ থেকে স্পষ্ঠভাবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে করোনা শঙ্কা সত্তেও যে ১২টি শহরে ইউরো ২০২০ আয়োজনের কথা রয়েছে সেখানেই তা আয়োজিত হবে। এবারের আসরের আয়োজক দেশগুলো হলো লন্ডন, গ্লাসগো, ডাবলিন, আমাস্টারডার, কোপেনহেগেন, সেন্ট পিটার্সবার্গ, বিলবাও, মিউনিখ, বুদাপেস্ট, বাকু, রোম ও বুখারেস্ট।
আগামী ১১ জুন রোমে টুর্নামেন্ট শুরু হয়ে ১১ জুলাই ওয়েম্বলীতে শেষ হবে।

আপনি কি মনে করেন?

0 টি পয়েন্ট
উপনোট ডাউনভোট

উগ্র সাম্প্রদায়িকতার উৎসমুখ জিয়াউর রহমানই উন্মুক্ত করেছিলেন : ওবায়দুল কাদের

নেইমারের সাথে নতুন চুক্তি নিয়ে আলোচনায় পিএসজি